bangla news

‘ত্রাণ চোরদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৫-১৪ ৬:২২:০৪ পিএম
দলের কর্মীদের ঈদ উপহার দিচ্ছেন জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের

দলের কর্মীদের ঈদ উপহার দিচ্ছেন জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের

ঢাকা: করোনা পরিস্থিতিতে যারা সরকারি ত্রাণ চুরি করছে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা নেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান ও বিরোধী দলীয় উপনেতা জি এম কাদের।

বৃহস্পতিবার (১৪ মে) দুপুরে জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কার্যালয় কাকরাইল চত্বরে ঢাকা-৪ আসনের সংসদ সদস্য, জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার পক্ষে দলের ৩ শতাধিক নেতাকর্মীর মাঝে ঈদ উপহার বিতরণকালে এ দাবি জানান তিনি। 

ত্রাণ চোরদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে জি এম কাদের বলেন, দেশের এমন সংকট মুহূর্তে হতদরিদ্র মানুষ জীবিকা হারিয়ে ত্রাণের জন্য রাস্তায়-রাস্তায় ঘুরছে, খেটে খাওয়া এ মানুষদের বাঁচাতে সরকার ব্যাপক ত্রাণ কার্যক্রম চালাচ্ছে। কিন্তু একদল অসাধু জনপ্রতিনিধি হতদরিদ্রদের এই ত্রাণ চুরি করছে। তাদের মধ্যে কেউ কেউ গ্রেফতার ও সাময়িকভাবে বরখাস্ত হয়েছে। কিন্তু সাময়িক বরখাস্তই যথেষ্ট নয়, ত্রাণ চোরদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে অন্য কেউ আর ভবিষ্যতে ত্রাণ চুরি করতে সাহস না পায়।

স্বাস্থ্যখাতের বেহাল দশা প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, সরকার বিভিন্ন সময় স্বাস্থ্যখাতে বিপুল অর্থ বরাদ্দ দিয়েছে। এখন অভিযোগ উঠেছে, সেই বরাদ্দ লোপাট হয়েছে। সরকারের উচিত এ ব্যাপারে একটি তদন্ত কমিশন গঠন করা। যদি কেউ দোষী প্রমাণিত হয়, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া।

অনুষ্ঠানে জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা, কো-চেয়ারম্যান সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাও বক্তব্য রাখেন। 

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে আরও উপস্থিত ছিলেন- দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূঁইয়া, দপ্তর সম্পাদক সুলতান মাহমুদ, যুগ্ম সাংগঠনিক সম্পাদক সুদন দে, সরফুদ্দিন আহমেদ সিপু, এম এ সোবাহান প্রমুখ।

এর আগে বেলা ১১টায় জি এম কাদের জাতীয় পার্টির বনানী কার্যালয়ে ৫ শতাধিক হতদরিদ্র মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন। জাতীয় যুব সংহতি ঢাকা মহানগর উত্তরের আয়োজনে ওই ত্রাণ বিতরণ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন মসিউর রহমান রাঙ্গা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২১ ঘণ্টা, মে ১৪, ২০২০
এসএমএকে/এইচজে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-05-14 18:22:04