bangla news

ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের প্রণোদনা দেওয়ার দাবি ১৪ দলের

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৪-০৩ ৮:৫৩:৪৭ পিএম
১৪ দলীয় জোট

১৪ দলীয় জোট

ঢাকা: করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে অর্থনৈতিক সংকট কাটিয়ে উঠতে ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের আর্থিক প্রণোদনা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দল। বিষয়টি বিবেচনার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করা হয়েছে।

শুক্রবার (৩ এপ্রিল) আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম জোটের পক্ষে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, বিশ্বব্যাপী এই মহাদুর্যোগের সময় আমাদের জাতিগতভাবে নিজস্ব শক্তিতে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। তারপরও ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের জন্য প্রণোদনা দেওয়া যায় কিনা আমাদের সেই আবেদন থাকবে প্রধানমন্ত্রীর কাছে।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সম্প্রতি করোনায় গার্মেন্টস সেক্টরে ক্ষতিপূরণের স্বার্থে ৫ হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। যা স্বল্প সুদে ঋণ হিসেবে দেওয়া হবে। যেহেতু তাদের অনেক বিদেশি অর্ডার স্থগিত কিংবা বাতিল হয়েছে তাই তারা কমবেশি ক্ষতিগ্রস্ত। তবে এদেশে হাজার হাজার ছোট দোকানদার করোনা ভাইরাসের প্রকোপের কারণে দীর্ঘদিন ধরে দোকান বন্ধ রেখেছে। বিভিন্ন ধরনের নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী যেমন জামা-কাপড়, ইলেক্ট্রনিক্স, বুটিকসসহ বিভিন্ন ক্ষুদ্র ব্যবসায় জড়িতরা যাদের ব্যবসার আয়ের ওপর শুধু মালিক নয়, কর্মচারীদের জীবিকাও নির্ভরশীল। তারা পড়েছেন চরম বিপাকে। এদেশে বুটিকস শিল্প খুবই জনপ্রিয়। এর সঙ্গে তাঁত শিল্পের ভাগ্য জড়িত। এ কাজটি তারা বন্ধ রেখেছে। ব্যবসা সেভাবে চালাতে পারছে না। এমনকি এবার পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠান বাতিল হয়ে গেছে।

নাসিম বলেন, নববর্ষকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর কোটি কোটি টাকার ব্যবসা হয়ে থাকে। আসন্ন ঈদে দোকানদারদের ব্যবস্থাও অনিশ্চিত। তাই এদেরকে বিশেষ অর্থনৈতিক প্রণোদনা না দিলে হাজার হাজার দোকান মালিক কর্মচারীসহ লাখ লাখ শ্রমিক দুঃসময়ের সম্মুখীন হচ্ছে এবং হবে। 

এছাড়া দেশে হাঁস-মুরগি ও গরুর খামার গড়ে উঠেছে। যার মাধ্যমে অনেকের অর্থনৈতিক অবস্থার পরিবর্তন ঘটেছে। ফলে অর্থনীতিতে বিরাট বিকাশ ঘটেছে। এরাও আজ ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। খামারিদের দুধের দামও কমে গেছে। এ বিষয়টি নিশ্চয় আমার দেশের সফল, মমতাময়ী ও জনবান্ধব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দৃষ্টিতে রয়েছে। এই শ্রেণীর মানুষগুলোর দুঃখ-কষ্ট প্রধানমন্ত্রী অনুধাবন করে থাকেন। তাই দুর্যোগময়কালে এই বিশেষ জনগোষ্ঠীর প্রণোদনা দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চয় প্রধানমন্ত্রী বিবেচনা করবেন। ১৪ দলের পক্ষ থেকে এটা আমাদের অনুরোধ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২০
এসকে/আরবি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-04-03 20:53:47