bangla news

দুঃশাসন হটাতে বামপন্থি শক্তির উত্থান চায় সিপিবি

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-০৬ ৯:৪৪:১১ পিএম
আলোচনা সভা। ছবি: বাংলানিউজ

আলোচনা সভা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: দেশ থেকে দুঃশাসন হটাতে দ্বিদলীয় মেরুকরণের বাইরে বামপন্থি শক্তির উত্থানের প্রয়োজন অনুভব করছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টির (সিপিবি) নেতারা।

শুক্রবার (০৬ মার্চ) সন্ধ্যায় রাজধানীর পল্টনের মুক্তি ভবনে সিপিবি’র ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় নেতারা বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করেন।

সিপিবির নেতারা আলোচনা সভায় বলেন, ফ্যাসিবাদী দুঃশাসন জগদ্দল পাথরের মতো দেশবাসীর ওপর চেপে বসেছে। মানুষের ভোটাধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। বিচার বিভাগের স্বাধীনতাকে বিপন্ন করা হচ্ছে। লুটপাটের মাধ্যমে  বিদেশে টাকা পাচার বেড়েই চলেছে। বিদ্যুৎ-পানির দাম বাড়ানো হয়েছে। গণবিরোধী সরকারকে হটাতে বামপন্থী শক্তির উত্থান ঘটাতে হবে।

তারা আরও বলেন, দুঃশাসন হটিয়ে যদি বাম-গণতান্ত্রিক বিকল্প শক্তিকে ক্ষমতায় আনা না যায়, তাহলে পর্যায়ক্রমে দুঃশাসন চলতেই থাকবে। এক দুঃশাসনের জায়গায় আরেক দুঃশাসন আসবে। তাই বাম-গণতান্ত্রিক শক্তির উত্থান ঘটাতেই হবে। বাম-গণতান্ত্রিক দল, শক্তি ও ব্যক্তিকে এক কাতারে দাঁড়াতে হবে।

বাংলাদেশের রাজনীতিতে কমিউনিস্ট পার্টির ভূমিকা প্রসঙ্গে নেতরা বলেন, ইতিহাসে কমিউনিস্ট পার্টির ভূমিকা উজ্জ্বল এবং বর্ণিল। তেভাগা, নানকার, টংকসহ কৃষক আন্দোলন, শ্রমিক আন্দোলনের পাশাপাশি সিপিবি ছাত্র ও সাংস্কৃতিক আন্দোলন সংগঠিত করেছে। ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, স্বৈরাচারবিরোধী গণতান্ত্রিক সংগ্রাম, সাম্প্রদায়িকতা-সাম্রাজ্যবাদবিরোধী লড়াই, জাতীয় সম্পদ রক্ষার আন্দোলন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের আন্দোলন, জামাত-শিবির নিষিদ্ধের আন্দোলনসহ সব আন্দোলন-সংগ্রামেই সিপিবি অনন্য ভূমিকা পালন করে চলেছে। সিপিবি তার বিপ্লবী ঐতিহ্যের ধারায় বর্তমানে কমিউনিস্ট ঐক্য ও বাম ঐক্যকে অগ্রসর করে নিচ্ছে। আন্দোলনের ফলে কমিউনিস্ট পার্টির নেতা-কর্মীদের ওপর বারবার হত্যা, নির্যাতন, জেল-জুলুম-হুলিয়ার খড়গ নেমে এসেছে। কয়েক দফায় পার্টিকে বেআইনি করা হয়েছে।

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম। পরিচালনা করেন সিপিবি সহকারী সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ জহির চন্দন। 

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন- বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি (মার্কসবাদী) নেতা ইকবাল কবির জাহিদ, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদ মার্কসবাদী নেতা মানস নন্দী, সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য লক্ষী চক্রবর্তী, সিপিবির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স, ঢাকা কমিটির সভাপতি মোসলেহ উদ্দিন প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২১৪৪ ঘণ্টা, মার্চ ০৬, ২০২০
আরকেআর/এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-06 21:44:11