bangla news

সরকার জনগণের নয় বলে যা ইচ্ছে তা করছে: ড. মোশাররফ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০৩-০৫ ৯:০৯:৫৭ পিএম
ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় কাউন্সিলে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ছবি: শাকিল আহমেদ

ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় কাউন্সিলে ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, নিত্য প্রয়োজনীয় সব দ্রব্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। পানি-বিদ্যুতের দামও বৃদ্ধি পেয়েছে। আবার গ্যাসের দামও বাড়ানো হবে। জনগণ অত্যন্ত খারাপ অবস্থায়। সরকার যদি জনগণের হত, তাহলে তাদের কথা চিন্তা করত। এই সরকার জনগণের নয় বলে যা ইচ্ছা তা করছে। জনগণের কী হলো, সেটা তাদের কাছে কোনো বিষয় নয়।

বৃহস্পতিবার (০৫ মার্চ) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবে ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এসময় ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় কাউন্সিল প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক মাওলানা আব্দুল করিম খানের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব মাওলানা ইলিয়াছ আতহারীর পরিচালনায় সর্বসম্মতিক্রমে ইসলামী ঐক্যজোটের জাতীয় নির্বাহী কমিটি গঠন করা হয়।
 
ড. মোশাররফ বলেন, বাংলাদেশে যখন একটি ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে, সেই সময়ে ইসলামী ঐক্যজোটের কাউন্সিল। প্রকৃতপক্ষে একটি দেশের, একটি জাতির সবক্ষেত্রে যখন অবক্ষয়, পচন ও মূল্যবোধসহ সবকিছু শেষ হয়ে যায়, তখন একটি দেশের ক্রান্তিকাল হয়। আজ দেশে গণতন্ত্র নেই। একজনের লোভ, একজনের লালসা চরিতার্থ করার জন্য সারাদেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার হরণ করা হয়েছে। একজন মানুষের কাছে দেশের ১৮ কোটি মানুষ বন্দি-জিম্মি। রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য একটি সরকার গঠন করা দরকার হয়। সেই সরকার যদি জনগণের সমর্থিত সরকার না হয়, জনগণের পছন্দমতো না হয়, তাহলে সেখানে অনাচার ও অনৈতিক কাজ শুরু হয়।
 
আওয়ামী লীগের উদ্দেশে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, আজ যারা সরকারে তারা জঙ্গিবাদ করে আর বলে বিএনপি জঙ্গি সংগঠন। বিশ্বের অন্যান্য দেশে মুসলিমদের বিরুদ্ধে কুৎসা রটনা করে, জঙ্গি বলে ইসলাম দমন করার চেষ্টা হচ্ছে। একই কায়দায় বাংলাদেশেও। আমরা বাংলাদেশের গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করতে চাই। গণতন্ত্র জনগণের কাছে ফিরিয়ে দিতে চাই। দেশকে একটি সুন্দর অর্থনীতির দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠা করতে চাই।

কাউন্সিলে ইসলামী ঐক্যজোটের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব, মহাসচিব মাওলানা আব্দুল করিম খান, ভাইস চেয়ারম্যান শাহ আলম চৌধুরী, পীরজাদা সৈয়দ মুহাম্মদ আহসান, অধ্যাপক মাওলানা ইলিয়াছ মাহমুদ, মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা শওকত আমিন, মাওলানা উবায়দুর রহমান খান নদভী, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা ইলিয়াছ আতহারী, সহকারী মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এইচএম আবুল কাশেম প্রমুখ বক্তব্য দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৮ ঘণ্টা, মার্চ ০৫, ২০২০
এমএইচ/টিএ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজনীতি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-03-05 21:09:57