bangla news

বিদেশিরা বন্ধু, চাপ দিতে চাইলে মেনে নেবো না: কাদের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-১৬ ২:২০:০৯ পিএম
ওবায়দুল কাদের। ছবি: বাংলানিউজ

ওবায়দুল কাদের। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: অভ্যন্তরীণ বিষয়ে বিদেশিরা আইনের বাইরে কোনো প্রকার চাপ দিতে চাইলে মেনে নেবেন না বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, তাদের সঙ্গে আমাদের বন্ধুত্ব আছে। তার মানে এই নয় যে, তারা আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবে।

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে ডাকা এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি বারবার কূটনীতিকদের কাছে ধর্না দিচ্ছেন এমন প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিদেশিরা আমাদের বন্ধু, তারা আমাদের আইনের বাইরে কোনো প্রকার চাপ দিতে চাইলে মেনে নেবো না। এটি আমাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার। কোনো বিদেশি দ্বারা সরকারের ওপর কোনো প্রকার চাপের বিষয়ে আমার জানা নেই।

খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কি পাবেন না জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার বিষয়টি হচ্ছে আদালতের এখতিয়ার, এটি কোনো রাজনৈতিক মামলা নয়। বিনা বিচারে তো ডিটেনশনে দেওয়া হয়নি। দুর্নীতির মামলা আদালতের এখতিয়ার। মানবিক বিবেচনা করতে পারে একমাত্র আদালত।

প্যারোল নিয়ে পর্দার অন্তরালে বিএনপির সঙ্গে সমঝোতা হচ্ছে কিনা প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, পর্দার অন্তরালে কিছুই নেই, সবকিছু ওপেন সিক্রেট। কোনটাই সিক্রেসি থাকবে না, সিক্রেসির কালচার নেই। এই যে দেখুন কালকে একটা টকশোতে শুনলাম মুক্তির বিষয়ে বিএনপি মহাসচিব আওয়ামী লীগ সেক্রেটারি জেনারেলের সঙ্গে কথা বলতেই পারে। তার মুক্তির ব্যাপারে আলাপ করতে পারেন এবং প্রধানমন্ত্রীকে আমি জানাবো এটা স্বাভাবিক। এখানে গোপনীয়তার কি আছে? মির্জা ফকরুল আবেদন করতেই পারেন।

কাদের বলেন, তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রীকে জানানোর জন্য, আমি বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে জানিয়েছি, অবহিত করেছি।

প্যারোলে আবেদন বিষয়টি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের এখতিয়ার জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, প্যারোল আবেদন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর কাছে করবেন, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এখনো লিখিত এ আবেদন পাননি।

লক্ষীপুর-২ এর সংসদ সদস্যের বিরুদ্ধে মানব পাচারের অভিযোগ গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, দুর্নীতি দমন কমিশনকে বলবো ব্যাপারটি তদন্ত করে দেখার জন্য। যদি কোনো প্রকার দুর্নীতির অভিযোগ থাকে তাহলে অবশ্যই আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দেশে সড়ক দুর্ঘটনা বেড়েই চলছে এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে তিনটা বিষয় রয়েছে। এখানে সচেতনতার ব্যপার আছে, ইঞ্জিনিয়ারিং এর বিষয় আছে এবং ফান্ডের বিষয় আছে। আমাদের চালকের সঙ্গে যাত্রী, পথচারীরাও বেপরোয়া। রাস্তা পারাপারের নিয়ম কানুন কেউ মেনে চলে না। দেখা গেছে পথচারীরা ফুটওভার ব্রিজ বাদ দিয়ে নিয়মের বাইরে গিয়ে রাস্তা পার হচ্ছেন নিয়মিত। রাস্তায় চলাচলের ক্ষেত্রেও কেউ ট্রাফিক সিগনালের মানছেন না।

বাংলাদেশ সময়: ১৪১৯ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২০
জিসিজি/এইচএডি/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-16 14:20:09