bangla news

যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে ফসলি জমির মাটি কেটে নেওয়ার অভিযোগ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০২০-০২-০৪ ৬:৪১:৫৬ এএম
নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জ

নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁয়ে জামপুর ইউনিয়নের উটমা এলাকায়  স্থানীয় দুই যুবলীগ কর্মীর বিরুদ্ধে রাতের আধারে কৃষকের ফসলি জমির মাটি কেটে স্থানীয় ইটভাটায় বিক্রির অভিযোগ উঠেছে। 

সোমবার (৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি কার্যালয় ও সোনারগাঁ থানায় ভুক্তভোগী কৃষক আমানউল্লাহ বাদী হয়ে এ ঘটনায় দুজনের নাম উল্লেখ করে অভিযোগ দায়ের করেছেন। 

রাতের আধারে কৃষি জমির মাটি চুরি করে কেটে নিয়ে যাওয়ার ঘটনায় কৃষকদের মাঝে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেছেন ওই এলাকার কৃষকরা।

সোনারগাঁ থানায় দায়ের করা অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার উটমা গ্রামের নুর মোহাম্মদ চৌধুরীর ছেলে লিটন চৌধুরী ও মৃত বিল্লাল দেওয়ানের ছেলে আরজু মিয়ার নেতৃত্বে ১০-১২ জনের একটি দল রাতের আঁধারে ওই এলাকার কৃষক আমানউল্লাহর ফসলি জমির মাটি চুরি করে স্থানীয় ইট ভাটায় বিক্রি করে দেয়। এ ঘটনায় ওই কৃষক আমানউল্লাহ বাদী হয়ে সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আল মামুন ও সোনারগাঁ থানায় পৃথকভাবে অভিযোগ দায়ের করেন। 

কৃষক আমানউল্লাহ জানান, ইরি ধান চাষ করার জন্য জমিটি আগাছা পরিষ্কার করে প্রস্তুত করেছি। গত দু’দিন ধরে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরুর প্রভাবে তার ছোট ভাই যুবলীগ কর্মী লিটন চৌধুরী ও আরজু দেওয়ানের নেতৃতে রাতের বেলায় আমার জমির মাটি কেটে নিয়ে যায়। সকালে জমিতে গিয়ে দেখি পুকুরের মতো করে মাটি কেটে নিয়ে গেছে তারা।   

উটমা গ্রামের কৃষক শহিদুল্লাহ মিয়া জানান, প্রতিদিন রাতে কোন না কোন কৃষি জমির মাটি চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে প্রভাবশালীরা। আমাদের কৃষি জমির মাটি চুরির আতংকে রয়েছি। স্থানীয় প্রশাসনও তাদের কিছু বলে না। কৃষি জমির মাটি লুটের ঘটনায় সুষ্ঠু বিচার দাবি করছি। 

এ অভিযোগ অস্বীকার করে অভিযুক্ত লিটন চৌধুরী বলেন, আমাদের জমি থেকে আমরা মাটি কেটে বিক্রি করছি। রাতের আঁধারে মাটি কাটার বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি জানান, দিনের বেলায় সড়কে যানজট থাকে বলে রাতের বেলায় মাটি কাটি। 

সোনারগাঁ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান জানান, কৃষকের ফসলি জমির মাটি কাটার বিষয়ে অভিযোগ গ্রহণ করা হয়েছে। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সোনারগাঁ উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি আল মামুন জানান, কোনভাবেই ফসলি জমির মাটি কাটা যাবে না। যেকোনোভাবে ফসলি জমির মাটি কাটা বন্ধ করা হবে।  

বাংলাদেশ সময়: ০৬৪১ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৪, ২০২০
আরকেআর/এনটি

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2020-02-04 06:41:56