bangla news

চেয়ারে বসা নিয়ে ২০ দলের আলোচনা সভায় হট্টগোল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-৩০ ৮:০৩:২১ পিএম
চেয়ারে বসা নিয়ে ২০ দলের আলোচনা সভায় হট্টগোল। ছবি- বাংলানিউজ

চেয়ারে বসা নিয়ে ২০ দলের আলোচনা সভায় হট্টগোল। ছবি- বাংলানিউজ

ঢাকা: ৩০ ডিসেম্বরকে ‘ভোটাধিকার হরণ দিবস’ আখ্যা দিয়ে ২০ দলীয় জোটের আয়োজিত আলোচনা সভার আগে হট্টগোল জড়িয়ে পড়েন নেতারা। পরে জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খানের হস্তক্ষেপে তারা শান্ত হন।  

সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকেলে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে এ ঘটনা ঘটে। 

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে ওই আলোচনা সভার আয়োজন করে ২০ দলীয় জোট। পূর্ব-ঘোষিত এ কর্মসূচিতে যোগ দেন ২০ দলীয় জোটের বিভিন্ন দলের নেতারা। এসময় মঞ্চের চেয়ারে কে কোনটাতে বসবেন, কে সামনে বসবেন, কে পেছনে বসবেন এ নিয়ে হট্টগোলে জড়িয়ে পড়েন তারা। 
 
ওই সময় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান সিনিয়র নেতাদের সামনে ও জুনিয়র নেতাদের পেছনে বসার আহ্বান জানিয়ে হট্টগোল থামান। 
 
সরেজমিন দেখা যায়, সভা শুরু হওয়ার আগে ২০ দলীয় জোটের শরীক দল পিপলস লীগের মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মাহবুব হোসেন, ন্যাপ ভাসানীর সভাপতি অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম ও এনডিপির সভাপতি কারী আবু তাহের সামনের চেয়ারে বসে ছিলেন। ইসলামী ঐক্যজোটের একাংশের মহাসচিব মাওলানা আবদুল করিম তাদেরকে সরে যেতে বলেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়। সেসময় ইসলামী ঐক্যজোটের কয়েক জুনিয়র নেতাকেও উচ্চবাচ্য করতে দেখা যায়। পরে নজরুল ইসলাম খান সিনিয়র নেতাদের সামনে বসার ব্যবস্থা করেন।

এদিকে সবাইকে শান্ত করার পর সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান এলডিপির একাংশের সদস্য সচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের পাশের চেয়ারে এলডিপির অপর অংশের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গলকে বসতে বললে তিনি সেলিমের পাশে বসতে অনিহা প্রকাশ করে সরে যান। পরে আবারও অনুরোধ করা হলে বেঙ্গল সেখানে না বসে পেছনের চেয়ারে গিয়ে বসেন। উল্লেখ্য, কিছুদিন আগেই এলডিপি ভেঙে দুই ভাগ হয়। এই সভায় এলডিপির একাংশের প্রতিনিধিত্ব করছিলেন বেঙ্গল ও অপর অংশের প্রতিনিধিত্ব করছিলেন সেলিম।
 
এদিকে চেয়ারে বসা নিয়ে অনাকাঙ্ক্ষিত এ হট্টগোলের ফলে নির্ধারিত সময়ের প্রায় ২০ মিনিট পর আলোচনা সভা শুরু হয়। পরে নজরুল ইসলাম খান লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানকে সভা পরিচালনার দায়িত্ব দিয়ে সবাইকে শান্ত ভাবে আলোচনায় অংশ নিতে বলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০০১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯
এমএইচ/এইচজে

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-30 20:03:21