bangla news

মুক্তিযোদ্ধার পুকুর দখল: জামাতাসহ আ’লীগ নেত্রী গ্রেফতার

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-১৫ ১২:২৬:৩০ পিএম
দখল নেওয়া পুকুরটি। ছবি: বাংলানিউজ

দখল নেওয়া পুকুরটি। ছবি: বাংলানিউজ

লালমনিরহাট: লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় সেই মুক্তিযোদ্ধার পুকুর দখলে নেওয়ার অভিযোগে ডাউয়াবাড়ি ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগ সভানেত্রী আমিনা বেগম ও তার মেয়ে জামাইসহ চারজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৪ ডিসেম্বর) দিনগত রাতে উপজেলার দক্ষিণ গড্ডিমারী গ্রামে নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এর আগে, ওইদিন দুপুরে তাদের নামে হাতীবান্ধা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান। তারা সবাই এই মুক্তিযোদ্ধার দায়ের করা দুইটি মামলার এজাহার নামীয় আসামি। 

গ্রেফতাররা হলেন- ওই নেত্রী আমিনা বেগম (৫৫), তার মেয়ে সাদিয়া আরফিন (৩৬), জামাতা সাবেক সেনা সদস্য আশরাফ আলী (৪৫) ও নাতনি নদী আক্তার (১৩)। 

পুলিশ জানায়, হাতীবান্ধা রেলওয়ে স্টেশনের পেছনে দক্ষিণ গড্ডিমারী এলাকায় বাংলাদেশ রেলওয়ের একটি পুকুর নিয়ে ওই এলাকার মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমান ও সাবেক সেনা সদস্য আশরাফের মধ্যে বিরোধ চলাছিল। ইতোমধ্যে বিরোধ জের ধরে পুকুরটির চারপাশে টিনের বেড়া দিয়েছেন মতিয়ার রহমান। পরে ১৪ ডিসেম্বর সকালে সাবেক সেনা সদস্য আশরাফের স্ত্রী সাদিয়া ও শ্বাশুড়ি আমিনা বেগম ওই পুকুরের বেড়া ভাঙচুর করে দখলে নেন। খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে।

এর আগে শুক্রবার (১৩ ডিসেম্বর) ওই পুকুর দখলের চেষ্টা করে ব্যর্থ হন আশরাফ। এ ঘটনায় মতিয়ার রহমান বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন। ১৪ ডিসেম্বর রাতে পুলিশ ওই বাড়ি থেকে আশরাফকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে এলে আমিনা বেগম ক্ষিপ্ত হয়ে মতিয়ারের বাড়িতে পুনরায় হামলা চালিয়ে তার স্ত্রীর হাত কেটে দেন। খবর পেয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ নিয়ে আমিনা বেগম, মেয়ে সাদিয়া ও নাতনি নদীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। 

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক বাংলানিউজকে বলেন, এ ঘটনায় মুক্তিযোদ্ধা মতিয়ার রহমানের দায়ের করা পৃথক দুইটি মামলায় ওই চারজন আসাসিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। আহত মুক্তিযোদ্ধার স্ত্রী হাতীবান্ধা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

** মুক্তিযোদ্ধার পুকুর দখল নিলেন আ’লীগ নেত্রী

বাংলাদেশ সময়: ১২২০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ১৫, ২০১৯
এসআরএস

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   লালমনিরহাট
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-12-15 12:26:30