ঢাকা, শুক্রবার, ১০ আশ্বিন ১৪২৭, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৬ সফর ১৪৪২

বিএনপি

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে খুলনায় সমাবেশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৫১ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৮, ২০১৯
খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে খুলনায় সমাবেশ

খুলনা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে কেন্দ্র ঘোষিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে খুলনায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রোববার (৮ ডিসেম্বর) দুপুরে খুলনা মহানগর ও জেলা বিএনপির আয়োজনে এ প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রীয় বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও খুলনা মহানগর বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মঞ্জু সমাবেশে সভাপতির বক্তব্য দেন।

তিনি বলেন, দেশে চলছে উন্নয়নের নামে লাগামহীন দুর্নীতি, দুঃশাসনে বিপর্যস্ত রাষ্ট্র, হাজার হাজার কোটি দুর্নীতিলব্ধ টাকা সরকারি দলের নেতা ও ব্যবসায়ীরা বিদেশে পাচার করে দিয়েছে। সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানগুলো সরকারের নগ্ন হস্তক্ষেপে নিষ্ক্রিয় হয়ে জনপ্রত্যাশার বিপক্ষে অবস্থান নিয়েছে। নির্বিচার দুঃশাসনে বাংলাদেশে কেউ এখন নিরাপদ নয়। আর এসব দুষ্কর্ম নির্বিঘ্নে সম্পন্ন করা এবং ক্ষমতাকে অবৈধভাবে দীর্ঘায়িত কূটকৌশনের অংশ হিসেবে খালেদা জিয়াকে সরকারই ষড়যন্ত্রমূলকভাবে বন্দি করে রেখেছে।

এছাড়া সভায় বক্তব্য দেন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনি, বিএনপি নেতা শাহারুজ্জামান মর্তুজা, মীর কায়সেদ আলী, জাফরউল্লাহ খান সাচ্চু, অধ্যক্ষ তারিকুল ইসলাম, মনিরুজ্জামান মন্টু, শেখ আব্দুর রশিদ, অ্যাডভোকেট ফজলে হালিম লিটন, সিরাজুল হক নান্নু, সাইফুর রহমান মিন্টু, কামরুজ্জামান টুকু, মোল্লা মোশাররফ হোসেন মফিজ, খায়রুল ইসলাম জনি, রেহানা ঈসা, নাজমুল হুদা সাগর, একরামুল হক হেলাল, মোল্লা কবির হোসেন, শরিফুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, জনগণের ম্যান্ডেট ছাড়াই ডে-নাইট ইলেকশনে ভোট কেটে ব্যালট বাক্স ভরে ক্ষমতা জবরদখল করেছে বর্তমান সরকার। অবৈধ সরকারের নিষ্ঠুর প্রতিহিংসার শিকার হয়ে দীর্ঘদিন কারাবন্দি খালেদা জিয়া। মিথ্যা বানোয়াট নথির ভিত্তিতে মামলায় তাকে সরকার ৬৬৮ দিন বন্দি করে রেখেছে, যা অত্যন্ত অমানবিক এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ০৮, ২০১৯
এমআরএম/ওএইচ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa