ঢাকা, রবিবার, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৯ আগস্ট ২০২০, ১৮ জিলহজ ১৪৪১

রাজনীতি

৩০ ডিসেম্বর ‘কালো দিবস’ পালনের ঘোষণা বাম জোটের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১৩০ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
৩০ ডিসেম্বর ‘কালো দিবস’ পালনের ঘোষণা বাম জোটের বাম গণতান্ত্রিক জোটের সংবাদ সম্মেলন।

ঢাকা: আগামী ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনের বর্ষপূর্তিতে ‘কালো দিবস’ পালনের ঘোষণা দিয়েছে বাম গণতান্ত্রিক জোট।

সোমবার (১৮ নভেম্বর) দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টনের মুক্তি ভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেওয়া হয়।

সংবাদ সম্মেলনের শুরুতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক, বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি’র প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, আগামী ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের এক বছর পূর্তি হবে। বাংলাদেশের ইতিহাসে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের দিন ৩০ ডিসেম্বর আরও একটি কালো দিবস হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। সংবিধানের সপ্তম অনুচ্ছেদ অনুযায়ী জনগণ রাষ্ট্রের মালিক। জনগণ ক্ষমতার চর্চা করে তাদের প্রতিনিধি নির্বাচনের মাধ্যমে। তাদের ভোটাধিকার ছিনিয়ে নেওয়ার এই দিনটিকে বাম গণতান্ত্রিক জোট কালো দিবস হিসেবে পালন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

লিখিত বক্তব্যে আরও বলা হয়, গত ১১ বছর ক্ষমতায় আছে ১৪ দলীয় জোট। এসময় ঘুষ, দুর্নীতি, লুটপাট, শেয়ারবাজার লুট, খেলাপি ঋণ প্রভৃতির মাধ্যমে লাখ লাখ কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। ক্যাসিনোর নামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটে নিয়েছে যুবলীগের নেতারা। গত এক বছরে উন্মোচিত হয়েছে সরকারের বালিশ, পর্দা, টিন, মেডিক্যাল সরঞ্জাম কেনার মতো দুর্নীতির ভয়াবহ চিত্র। পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলো দুর্নীতির আখড়াতে পরিণত হয়েছে। উপাচার্য ও প্রশাসনের নানা ধরনের দুর্নীতি প্রকাশিত হচ্ছে। সরকারের শুদ্ধি অভিযান কয়েকজন চুনোপুঁটি ধরার মধ্য দিয়ে মুখ থুবড়ে পড়েছে। নারী ও শিশু নিপীড়ন ভয়াবহ রূপ নিয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলো ছাত্রলীগের টর্চার সেলে পরিণত হয়েছে। আয় ও সম্পদ বৈষম্য ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে।

আগামী ২১ নভেম্বর বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বাম গণতান্ত্রিক জোটের উদ্যোগে পেঁয়াজ, চালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের দাম বাড়া ও সরকারের নিষ্ক্রিয়তার প্রতিবাদে সমাবেশের ঘোষণা দেওয়া হয়। জনগণের ভোটাধিকার হরণের প্রতিবাদে আগামী ৩০ ডিসেম্বর সারা দেশে উপজেলা পর্যায়ে জোটের শরিক দলগুলোর কার্যালয়ে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, কালো পতাকা মিছিলসহ ঢাকায় কেন্দ্রীয় সমাবেশ করার ঘোষণা দেওয়া হয় সংবাদ সম্মেলনে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন সিপিবি’র সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম, বাসদ'র সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য শুভ্রাংশু চক্রবর্তী, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লিগ বাংলাদেশের (ইউসিএলবি) সম্পাদকদলের সদস্য অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির সাধারণ সম্পাদক মোশরেফা মিশু, গণসংহতি আন্দোলনের সম্পাদকদলের সদস্য মনিরউদ্দিন পাপ্পু।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩১ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
আরকেআর/এফএম 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa