bangla news

ভেঙেই গেলো অলির এলডিপি

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১১-১৮ ১২:৫৩:৫৭ পিএম
সংবাদ সম্মেলনে নতুন এলডিপির নেতারা। ছবি: বাংলানিউজ

সংবাদ সম্মেলনে নতুন এলডিপির নেতারা। ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: অবশেষে ভেঙেই গেল বিএনপি থেকে বেরিয়ে নতুন দল গড়া কর্নেল (অব.) অলি আহমদের রাজনৈতিক দল লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি)।  দলের সাবেক কয়েকজন নেতা মিলে ৭ সদস্যর আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণার মধ্য দিয়ে এই ভাঙন প্রক্রিয়া পাকাপোক্ত হয়েছে। 

সোমবার (১৮ নভেম্বর) সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের মওলানা আকরম খাঁ হলে ‘সাম্প্রতিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে এলডিপির ভাঙন ও নতুন কমিটির ঘোষণা দেওয়া হয়।  

ঘোষিত নতুন এলডিপির আহ্বায়ক করা হয়েছে বিএনপি থেকে একাধিকবার নির্বাচিত জাতীয় সংসদ সদস্য (নেত্রকোণা-১) ও জাতীয় সংসদের সাবেক হুইপ প্রবীণ নেতা আব্দুল করিম আব্বাসীকে। 

আর কর্নেল অলির এলডিপি থেকে সদ্য বাদ পড়া সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমকে করা হয়েছে সদস্য সচিব। এছাড়া নতুন গড়ে উঠা এলডিপির আহ্বায়ক কমিটিতে আরও রয়েছেন বিএনপির সাবেক সংসদ সদস্য ও এলডিপির সাবেক প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুল গণি, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এম আবুল বাশার, তৌহিদ আনোয়ার ও ইবরাহিম রওনক, সাবেক দপ্তর সম্পাদক কাজী মতিউর রহমান।

নতুন এলডিপির কমিটি ঘোষণার সময় শাহাদাত হোসেন সেলিম বলেন, কর্নেল (অব.) অলির অতি জামায়াত নির্ভরতা ও জামায়াত প্রীতির কারণে তার সঙ্গে রাজনীতি করা সম্ভব নয়। সেই কারণে দূরত্ব সৃষ্টি। ফল হিসেবে নতুন এলডিপি গঠনকরা হয়েছে। 

সংবাদ সম্মেলনে এলডিপি থেকে কর্নেল অলিসহ কয়েকজনকে অব্যাহতি দেওয়ার কথাও জানানো হয়। বার্ধক্যজনিত কারণে তারা রাজনীতি তথা দলের মধ্যে ভূমিকা রাখতে পারছেন না বলেও দাবি করা হয়। 

এর আগে, রোববার (১৭ নভেম্বর) রাজধানীর একটি হোটেলে নতুন এলডিপি গঠনের লক্ষ্যে দলটির বিক্ষুব্ধ ও সাবেক নেতারা বৈঠক করেন। সেখানে তারা পাল্টা এলডিপি গঠনের সিদ্ধান্ত নেন।

বৈঠক সূত্র জানায়, এলডিপির সভাপতি অলি আহমদ গত ৯ অক্টোবর সম্পূর্ণ অগণতান্ত্রিকভাবে কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষণা করেছেন। তার দাম্ভিকতায় নেতারা ক্ষুব্ধ হয়ে বৈঠক করে আব্দুল করিম আব্বাসী এবং শাহাদাত  হোসেন সেলিমের নেতৃত্বে গঠনতন্ত্র মোতাবেক নতুন কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নেন। 

এলডিপি থেকে অলি আহমদসহ কয়েকজনকে অব্যাহতি দেওয়ারও সিদ্ধান্ত হয় বলে জানান বৈঠকের একাধিক সূত্র। 

বাংলাদেশ সময়: ১২৫২ ঘণ্টা, নভেম্বর ১৮, ২০১৯
এমএইচ/এমএ 

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজনীতি
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-11-18 12:53:57