ঢাকা, শুক্রবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

বিএনপি

দুর্নীতির কারণেই আ’লীগ সরকারের পতন হবে: মওদুদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৮, ২০১৯
দুর্নীতির কারণেই আ’লীগ সরকারের পতন হবে: মওদুদ স্বাধীনতা ফোরাম আয়োজিত স্মরণসভায় অতিথিরা। ছবি: জিএম মুজিবুর

ঢাকা: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, দুর্নীতির কারণেই আওয়ামী লীগ সরকারের পতন হবে। দুই-চারজন খালেদ-শামীম-সম্রাটকে ধরে বিচার করে পার পাওয়া যাবে না। আওয়ামী লীগ সরকারের শাখা-প্রশাখায় দুর্নীতির বিস্তার করেছে। দুর্নীতির যে সুড়ঙ্গ সরকার তৈরি করেছে, তা থেকে তারা বের হতে পারবে না। ব্যর্থতার কারণেই এই সরকারের পতন ঘটবে। 

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে স্বাধীনতা ফোরাম আয়োজিত সাবেক মেয়র সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যুতে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, আমরা মুক্তিযুদ্ধ করেছি আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার জন্য, বিচার বিভাগের স্বাধীনতার জন্য, সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য।

মানুষ সুস্থ রাজনীতির চর্চা করবে, সেই উদ্দেশ্যেই আমরা দেশ স্বাধীন করেছিলাম। মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত সব অর্জন নস্যাৎ হয়ে যাবে, এটা হতে পারে না। আমরা আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারের পতন ঘটাবো।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী যতবারই ভারতে গেছেন, ততবারই তিনি শুধু দিয়ে এসেছেন। বাংলাদেশের মানুষের জন্য তিনি কিছুই আনতে পারেননি। তিনি বাংলাদেশের মানুষকে বঞ্চিত করে ফেনী নদীর পানি ভারতকে দিয়ে এসেছেন। আমরা তো ভারতের বিরুদ্ধে নই, ভারতের সঙ্গে আমাদের ভালো সম্পর্ক রাখতে চাই। সরকার যদি আমাদের স্বার্থ বিক্রি করে দেয়, তাহলে তো ভারতকে দোষারোপ করতে পারি না।  

সম্প্রতি নুসরাত হত্যা মামলার রায় প্রসঙ্গে সাবেক আইনমন্ত্রী বলেন, সরকার নুসরাত হত্যা মামলার বিচার সম্পূর্ণ করে বলছে,‌ তারা আইনের শাসন কায়েম করেছে। প্রতিদিন শত শত নারী ও শিশু নির্যাতন হচ্ছে। নিতু, মিতু, ত্বকি, সাগর-রুনি এদের বিচার কোথায়? আজ বাধ্য হয়ে দুই-একটা মামলার বিচার করছে তারা। এগুলো মানুষকে ধোকা দেওয়া। ‌‌‌‌২৬ লাখ বিএনপি নেতাকর্মীর নামে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। অনেককে হত্যা ও গুম করা হয়েছে। তাদের বিচার কে করবে? দেশে আইনের শাসন নেই, দলীয় শাসন রয়েছে।

বিএনপি নেতা বলেন, সামান্য দুই কোটি টাকার জন্য খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে। অথচ শামীমের অফিসে ১৫০ কোটি টাকার এফডিআর পাওয়া গেছে। তাহলে তার কত বছরের সাজা হওয়া উচিত? শুধু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণেই বেগম জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে। আমরা ইনশাল্লাহ তাকে কারাগার থেকে মুক্ত করে আনবো। তিনি জামিনে নয়, বরং আন্দোলন-সংগ্রামের মাধ্যমেই মুক্ত হবেন।

আবু নাসের মোহাম্মদ রহমতুল্লাহ সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধূরী, জাসদ (রব) সভাপতি আ স ম আব্দুর রব, বিএনপি নেতা শিমুল বিশ্বাস, অ্যাডভোকেট নিপুন রায় প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ০৮, ২০১৯
আরকেআর/একে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa