ঢাকা, বুধবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
bangla news

‘সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে ষড়যন্ত্র চলছে’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৮-৩১ ৩:৩৭:০১ পিএম
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

ঢাকা: সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করতে নানা দিক থেকে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করে তা মোকাবিলায় নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকার অহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক।

শনিবার (৩১ আগস্ট) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

আলোচনা সভায় ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারের বিরুদ্ধে নানাভাবে ষড়যন্ত্র চলছে। ২০০৮ সালের ২৯ ডিসেম্বরের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পর থেকে এই সরকারকে ক্ষমতাচ্যুত করার জন্য নানা দিক থেকে চক্রান্ত চালানো হচ্ছে। আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে, স্বাধীনতা বিরোধীদের মোকাবিলা করতে হবে। আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকলে পৃথিবীর কোনো শক্তি নেই আওয়ামী লীগকে ক্ষমতাচ্যুত করতে পারে।

‘যুদ্ধপরাধীদের বিচারের সময় খালেদা জিয়া বলেছিল নিজামীরা যুদ্ধাপরাধী ছিল না। ইভিল জিনিয়াস ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছিল যুদ্ধাপরাধীদের বিচার সঠিক হচ্ছে না। আমরা এই সব মিথ্যাচার রুখে দিয়েছি, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হয়েছে।’

মন্ত্রী আরও বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা হয়েছে। এই ঘটনার সঙ্গে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমান যুক্ত ছিল। তারা যুক্ত না থাকলে এতো বড় ঘটনা ঘটতে পারে না, কারণ তারা তখন ক্ষমতায় ছিল। এই গ্রেনেড হামলার বিচারে খালেদা ও তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তি হবে। 

আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা বলেন, বঙ্গবন্ধুর খুনীদের বিচার বন্ধ করে জিয়াউর রহমান প্রমাণ করেছিলেন তিনি এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার সময় খালেদা জিয়া ক্ষমতায় ছিল। রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় এই হামলা চালানো হয়। এই গ্রেনেড হামলার দায়ে খালেদা জিয়াকে অবিলম্বে বিচারের আওতায় আনা হোক।

শাহবাগ থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি জিএম আতিকুর রহমানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, সহ-সভাপতি রুহুল আমিন রুহুল, কামাল চৌধুরী, শহিদুল ইসলাম, সাজিদ রহমান, আকতার হোসেন প্রমুখ। 

বাংলাদেশ সময়: ১৫৩৬ ঘণ্টা, আগস্ট ৩১, ২০১৯
এসকে/এইচএডি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   আওয়ামী লীগ
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-08-31 15:37:01