ঢাকা, শনিবার, ২ ভাদ্র ১৪২৬, ১৭ আগস্ট ২০১৯
bangla news

ডেঙ্গু রোধে প্রয়োজনে সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান: নাসিম

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৭-৩১ ৪:২৩:০৯ পিএম
বক্তব্য রাখছেন মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

বক্তব্য রাখছেন মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: সিনেমার স্টাইলে প্রধান রাস্তায় মশা মারার ওষুধ দিলে কাজ হবে না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম। তিনি বলেছেন, এডিস মশার যেখানে জন্ম সেসব জায়গায় ওষুধ দিতে হবে। প্রয়োজনে সেনাবাহিনীকে কাজে লাগাতে হবে ডেঙ্গু প্রতিরোধে। 

বুধবার (৩১ জুলাই) দুপুরের জাতীয় প্রেসক্লাবের আবদুস সালাম মিলনায়তনে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘ডেঙ্গু প্রতিরোধে কার্যকরি পদক্ষেপ গ্রহণ এবং সামাজিক অস্থিরতা’ শীর্ষক সভাটির আয়োজন করে বাংলাদেশ সাম্যবাদী দল (এমএল)। 

শিক্ষামন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে সাবেক এ স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, অভিভাবকরা বাচ্চাদের স্কুলে পাঠাতে ভয় পাচ্ছেন, কিছুদিন পর ঈদের ছুটিতে এমনিতেই স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হবে। তাই আমি শিক্ষামন্ত্রীকে অনুরোধ করছি, আপনারা স্কুল-কলেজে ছুটি ঘোষণা করুন।

আওয়ামী লীগের সব সহযোগী সংগঠন এবং ১৪ দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশে নাসিম বলেন, এখন মিটিং-মিছিলের দরকার নেই। আপনারা প্রতিদিন নিজেদের এলাকায় ডেঙ্গু নিধনে কাজ করা হচ্ছে কি-না পর্যবেক্ষণ করুন। ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে সব শক্তি নিয়ে সমন্বিতভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ুন। 

সাবেক এই স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, সিনেমার স্টাইলে মেইন রাস্তায় মশা মারার ওষুধ দিলে কাজ হবে না। এডিস মশার যেখানে জন্ম সেসব জায়গায় ওষুধ প্রয়োগ করেন। প্রয়োজনে সমস্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী এবং সেনাবাহিনীকে কাজে লাগান ডেঙ্গু নির্মূলে। সবার সম্মিলিত এবং কার্যকরী উদ্যোগের মাধ্যমে ডেঙ্গু নির্মূল করা সম্ভব। কারণ বাঙালি পরাজিত হতে জানে না। বাঙালির জন্মই হয়েছে জয়ী হওয়ার জন্য।

সভায় সভাপতিত্ব করেন সাবেক শিল্পমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া। সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, ঢাকা মহানগর ১৪ দলের সমন্বয়ক ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জেপির প্রেসিডিয়াম সদস্য এজাজ আহমেদ মুক্তা, সাম্যবাদী দলের পলিট ব্যুরোর সদস্য লুতফর রহমান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদত হোসেন প্রমুখ। 

বাংলাদেশ সময়: ১৬১৯ ঘণ্টা, জুলাই ৩১, ২০১৯
আরকেআর/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-07-31 16:23:09