ঢাকা, রবিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬, ১৯ মে ২০১৯
bangla news

বিএনপি নেতা শাহীন হত্যা মামলার প্রধান আসামি গ্রেফতার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-২৪ ১:৩৪:২৬ এএম
আমিনুল ইসলাম

আমিনুল ইসলাম

বগুড়া: বগুড়া সদর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহবুব আলম শাহীন হত্যা মামলার প্রধান আসামি আমিনুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার (২৩ এপ্রিল) রাত পৌনে ৮টার দিকে রাজধানী ঢাকার মতিঝিল থেকে তাকে গ্রেফতার করে বগুড়া জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি টিম।

বগুড়ার অতিরিক্তি পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, মামলার প্রধান আসামি আমিনুল ইসলামকে গ্রেফতারের পর তাকে নিয়ে রাতেই বগুড়ার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছে পুলিশ। বুধবার (২৪ এপ্রিল) আমিনুল ইসলামকে আদালতে হাজির করা হবে।

বিএনপি নেতা হত্যা মামলার প্রধান আসামি আমিনুল ইসলাম আব্দুল লতিফ মন্ডলের ছেলে। তিনি বগুড়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ১৫ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। এছাড়াও আমিনুল বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক।

এর আগে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিএনপি নেতা হত্যা মামলায় পায়েল ও রাসেল নামের দু’জনকে গ্রেফতার করে। এর মধ্যে পায়েল ছিলো মামলার এজাহারভুক্ত আসামি। পরে দু’জনেই আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন। সেই জবানিতে দু’জনেই আদালতে আমিনুল ইসলামের পরিকল্পনাতেই বিএনপি নেতা মাহবুব আলম শাহীনকে হত্যা করা হয় বলে স্বীকারোক্তি দেন।

রোববার (১৪ এপ্রিল) দিনগত রাত ১১ টার দিকে শহরের নিশিন্দারা উপশহর বাজার এলাকায় বিএনপি নেতা মাহবুব আলম শাহীনকে ছুরিকাঘাত করে দুর্বৃত্তরা। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় ১৬ এপ্রিল নিহত শাহীনের স্ত্রী আকতার জাহান শিল্পী বাদী হয়ে আমিনুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে মামলা করে। এ মামলায় ছয় জনের নামোল্লেখসহ ১১জনকে আসামি করা হয়েছে। বগুড়া মোটর মালিক গ্রুপের চলমান বিরোধ নিয়ে অ্যাডভোকেট শাহীনকে হত্যা করা হয় বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ২৪, ২০১৯
এমবিএইচ/টিএম/এএটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   গ্রেফতার বগুড়া
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14