ঢাকা, রবিবার, ৩ ভাদ্র ১৪২৬, ১৮ আগস্ট ২০১৯
bangla news

জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধকে কলঙ্কিত করেছেন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৪-১৭ ৩:১৭:২০ পিএম
মাহাবুব-উল আলম হানিফ। ছবি: বাংলানিউজ

মাহাবুব-উল আলম হানিফ। ছবি: বাংলানিউজ

মেহেরপুর: আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহাবুব-উল আলম হানিফ বলেছেন, জিয়াউর রহমান ভুয়া মুক্তিযোদ্ধাদের তালিকাভুক্ত করে মুক্তিযুদ্ধকে কলঙ্কিত করেছেন। তার স্ত্রী খালেদা জিয়া ৩০ লাখ শহীদের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করে মুক্তিযুদ্ধকে ইতিহাস থেকে মুছে ফেলার চেষ্টা করেছেন। তিনি যতই চেষ্টা করুন না কেনো মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসকে মুছে ফেলা যাবে না। 

বুধবার (১৭ এপ্রিল) ঐতিহাসিক মুজিবনগর দিবস উদযাপন উপলক্ষে মুজিবনগর আম্রকাননে শেখ হাসিনা মঞ্চে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন- আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু।

এছাড়াও বক্তব্য রাখেন- মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ.ক.ম. মোজাম্মেল হক, মেহেরপুর-১ আসনের সংসদ সদস্য ও জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা এসএম কামাল, খুলনা বিভাগীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ আল মাহমুদ স্বপন, মেহেরপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য শাহীদুজ্জামান খোকন, সাইফুজ্জামান শিখর এমপি, আব্দুর রহমান এমপি প্রমুখ।

এরআগে, দিবসটি উপলক্ষে ভোরে সূর্যোদয়ের সঙ্গে সঙ্গে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে জাতীয় পতাকা উত্তোলনের মাধ্যমে দিনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু করেন। এরপর সকাল ৯টায় মুজিবনগর স্মৃতিসৌধে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আমির হোসেন আমু। 

পরে আনুষ্ঠানিকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন শেষে পুলিশ, আনসার ভিডিপি, বিএনসিসি, গালর্স গাইড সদস্যরা কেন্দ্রীয় অতিথিদের গার্ড অব অনার প্রদান করেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫০৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৭, ২০১৭
এনটি

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রাজনীতি আওয়ামী লীগ বিএনপি মেহেরপুর
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-04-17 15:17:20