ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ আষাঢ় ১৪২৬, ২০ জুন ২০১৯
bangla news

সড়কে নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবে ১৪ দল

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৩-২৩ ৫:৪৩:২৬ পিএম
বক্তৃতা করছেন মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

বক্তৃতা করছেন মোহাম্মদ নাসিম। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: সড়ক-মহাসড়কে নৈরাজ্যে, মাদক, নারী ও শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে ১৪ দল সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য এবং ১৪ দলের মুখপাত্র মোহাম্মদ নাসিম।

শনিবার (২৩ মার্চ) দুপুরে প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমানের ষষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা জানান। জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু একাডেমি এ স্মরণ সভার আয়োজন করে।

সভায় নাসিম বলেন, সড়কে একের পর এক মানুষ মারা যাচ্ছে। মন্ত্রিসভায় সিদ্ধান্ত রয়েছে, আমি যখন মন্ত্রী ছিলাম তখন কাজ করেছি, প্রধানমন্ত্রীও নির্দেশ দিয়েছেন, সংসদে আলোচনা হয়েছে। কয়েকটি বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়েছিল। প্রশাসনকে বলা হয়েছে, সড়ক পরিবহনখাতকে বলা হয়েছে, এমনকি পুলিশসহ সব আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে বলা হয়েছিল সেগুলো বাস্তবায়ন করতে। তাহলে কেন সেগুলো বাস্তবায়ন হচ্ছে না? সেগুলো বাস্তবায়ন করতে হবে। সড়কে নৈরাজ্য, নানা ক্ষেত্রে প্রশাসনের শিথিলতা, নারী শিশু নির্যাতনের বিরুদ্ধে ১৪ দল এখন থেকে সামাজিক আন্দোলন শুরু করবে।

নাসিম আরও বলেন, এসব ক্ষমতাধর ব্যক্তি কারা? তারা পরিবহনখাতে, হয়তো শ্রমিক নেতা অথবা বাস মালিক অথবা প্রশাসনের লোক। কেন এগুলো বাস্তবায়ন হয় না? বাস্তবায়ন হবে না, একটা করে জীবন যাবে রাস্তায় আর সরকার দায়ী হবে? এটা হতে পারে না। একটা জীবনের দাম কি ১০ লাখ টাকা? একটা জীবন কি অর্থের বিনিময়ে বিক্রি হয়ে যাবে? কেন তারা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ বাস্তবায়ন করছে না? আমি জানতে চাই। 

উপজেলা নির্বাচন প্রসঙ্গে নাসিম বলেন, উপজেলা নির্বাচন হচ্ছে, আমি নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানাই। প্রশাসনকে দিয়ে একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের চেষ্টা করে যাচ্ছে তারা। কিন্তু অতিউৎসাহী প্রশাসনের কর্মকর্তারা, তারা মাঠপর্যায়ে থেকে এ নির্বাচন কমিশনের ভূমিকাকে খাটো করার চেষ্টা করে যাচ্ছে। ছোট ছোট লাট আছে বিভিন্ন জায়গায়, তারা প্রধানমন্ত্রীর চেয়ে বেশি ক্ষমতাবান মনে করে নিজেকে। স্থানীয় পর্যায়ে এসব ছোট ছোট লাট উপজেলা নির্বাচনে তার প্রার্থীকে জেতানোর জন্য এমন কোনো কাজ নেই যেটা তারা করে না। এটা হতে পারে না। এসব তথাকথিত ক্ষমতাধর ব্যক্তি কারা? যারা প্রভাব বিস্তার করে নির্বাচনকে বিতর্কিত করতে চায়, তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। সতর্ক থাকতে হবে। নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ করবো, আপনারা ক্ষমতা প্রয়োগ করবেন।

বঙ্গবন্ধু একাডেমির সভাপতি নাজমুল হকের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, মোজাফফর হোসেন পল্টু প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪১ ঘণ্টা, মার্চ ২৩, ২০১৯ 
এসকে/জেডএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-03-23 17:43:26