ঢাকা, রবিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

গণশুনানিতে সবাই গণঘুমে ব্যস্ত ছিল: ড. হাছান

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০২-২৬ ৪:০৪:৫০ পিএম
মতবিনিময় সভা, ছবি: বাংলানিউজ

মতবিনিময় সভা, ছবি: বাংলানিউজ

ঢাকা: ঐক্যফ্রন্ট গণশুনানির মাধ্যমে জনগণের কাছে কোনো আবেদন তৈরি করতে পারেনি বলে দাবি করেছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেছেন, জনগণের চোখে ধুলা দেওয়ার জন্য একটি নাটক মঞ্চায়ন করা হয়েছে। কিন্তু তারা গণঘুমে ব্যস্ত ছিলেন। তাই তাদের এই গণশুনানি জনগণের কাছে কোনো আবেদন তৈরি করতে পারেনি। 

মঙ্গলবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ‘জলবায়ু পরিবর্তন ঝুঁকি মোকাবিলায় গণমাধ্যম’ শীর্ষক আলোচনায় পরিবেশ সাংবাদিকদের সংগঠন বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ জার্নালিস্ট ফোরামের সঙ্গে মতবিনিময়কালে প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন মন্ত্রী।

এক প্রশ্নের জবাবে আওয়মী লীগের প্রচার সম্পাদক হাছান বলেন, গণশুনানিতে দেখলাম সবাই গণঘুমে ব্যস্ত ছিল। আমি যেটা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেখলাম, যে গণশুনানির সময় তারা সবাই ঘুমাচ্ছিলাম। গণশুনানির নামে এটি আসলে…জনগণকে, জনগণের চোখে ধুলা দেওয়ার জন্য একটি নাটক মঞ্চায়ন করা হয়েছে। গণশুনানির কোনো আবেদন তারা জনগণের কাছে তৈরি করতে পারেনি।

‘তাদের দলেরই একজন নেতা বলেছেন, যে গণশুনানি করার পাশাপাশি তাদের নেতাদের শুনানি করা প্রয়োজন কার কী ভূমিকা ছিল। আমি মনে করি, আগে তাদের নেতাদের শুনানি করা প্রয়োজন, কার কী ভূমিকা ছিল এবং এখন আছে।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে সম্প্রতি ঐক্যফ্রন্টের গণশুনানির পর ফেসবুকে কয়েকজন নেতার ঘুমের ছবি ভাইরাল হয়েছিল।
 
ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল কয়েকজন কূটনীতির সঙ্গে দেখা করেছেন- এ বিষয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, প্রকৃতপক্ষে জনগণই ক্ষমতার মালিক। জনগণের বাইরে অন্য কেউ ক্ষমতার মালিক নয়। বিএনপি এবং ঐক্যফ্রন্ট ঘন ঘন বিদেশিদের সঙ্গে দেখা করার মাধ্যমে তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্বই প্রকাশ পায়। এবং তারা যেকোনো কিছু হলেই বিদেশিদের কাছে ধর্ণা দেন। এটি শুধু দেশকে অপমাণিত করে তা নয়, তাদের নিজেদেরও অপমানিত করা হয়, তাদের দলকেও অপমানিত করে।
 
‘আমি মনে করি তাদের ধর্ণা দেওয়া উচিত জনগণের কাছে, বিদেশিদের কাছে নয়। রাষ্ট্রের মালিক হচ্ছে জনগণ, রাজনৈতিক দল হিসেবে জনগণের দল যদি তারা হয়, তাহলে তারা ধর্ণা দেবে জনগণের কাছে।’
 
সংগঠনের সভাপতি কাওসার রহমান ও সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেনের নেতৃত্বে এসময় পরিবেশ সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯
এমআইএইচ/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2019-02-26 16:04:50