[x]
[x]
ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ কার্তিক ১৪২৫, ১৬ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

‘জাতীয়তাবাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য’র গ্রহণযোগ্যতা নেই

শাহজাহান মোল্লা, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-২৩ ১:১৩:১২ পিএম
জনসভায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখছেন ওবায়দুল কাদের। ছবি: উজ্জ্বল ধর

জনসভায় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য রাখছেন ওবায়দুল কাদের। ছবি: উজ্জ্বল ধর

অাওয়ামী লীগের নির্বাচনী সড়কযাত্রার বহর থেকে: বরাবরের মতো অাগামী নির্বাচনেও অাওয়ামী লীগ ঐক্যবদ্ধ থাকলে কেউ তাদের হারাতে পারবে না বলে মনে করেন ক্ষমতাসীন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, অাওয়ামী লীগ একটি জনপ্রিয় দল, সেই দলকে বাদ দিয়ে কোনো জাতীয় ঐক্য হতে পারে না, হবে না। যেটা হয়েছে সেটা ‘জাতীয়তাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য’। বাংলাদেশে ওই সাম্প্রদায়িক ঐক্যের গ্রহণযোগ্যতা নেই।

রোববার (২৩ সেপ্টেম্বর) সকালে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের কর্ণফুলী শিকলবাহার এসঅার স্কয়ারে আয়োজিত এক জনসভায় ওবায়দুর কাদের এ কথা বলেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ঢাকা থেকে কক্সবাজার পর্যন্ত আওয়ামী লীগের সড়কযাত্রার মাঝে এ সভার আয়োজন করা হয়। 

শনিবার (২২ সেপ্টেম্বর) সকালে ঢাকা থেকে রওয়ানা হওয়ার পর ফেনী হয়ে চট্টগ্রামে এসে প্রথম দিনের সড়কযাত্রা শেষ হয়। সেখানে রাত্রিযাপন শেষে সকালে শাহ অামানত (র.) এর মাজার জিয়ারত করে দ্বিতীয় দিনের সড়কযাত্রা শুরু করেন আওয়ামী লীগের নেতারা। প্রথমেই তারা কর্ণফুলী ও অানোয়ারা উপজেলা অাওয়ামী লীগ অায়োজিত এ জনসভায় যোগ দেন। 

কর্ণফুলী থানা অাওয়ামী লীগের সভাপতি সৈয়দ জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন অাওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল অালম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জান চৌধুরী জাবেদ।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অাওয়ামী লীগ সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অাব্দুল মতিন খসরু, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল প্রমুখ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয়তাবাদী সম্প্রদায়িক ঐক্যের গ্রহণযোগ্যতা নেই। তারা নেতায় নেতায় ঐক্য করে, ৩০ দলের ৩০ নেতা, জনগণ তাদের ডাকে সাড়া দেবে না।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, প্রধানমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন ঐক্য প্রক্রিয়া যেখানে মিটিং করতে চায়, তাদের কোনো বাধা নাই, স্বাগত। তাদের সোহরাওয়ার্দী ময়দান উন্মুক্ত করা হয়েছিল, সেখানে যায়নি। বিএনপি বড় মাঠে যায় না ভয়ে, লোক হবে না। অাজ এখানে লক্ষাধিক জনসমাগমের সমান লোক ঢাকায় করে দেখাক।

‘অাইআরআই এর জরিপে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা ৬৬ শতাংশ। অার অাওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা ৬৪ শতাংশ। এই জনপ্রিয় দল বাদ দিয়ে কোনো ঐক্য হয়? হবে না। ওটা জাতীয়তাবাদী সাম্প্রদায়িক ঐক্য। তাদের কোনো গ্রহণযোগ্যতা নেই।’আওয়ামী লীগের জনসভায় নেতাকর্মীদের একাংশ। ছবি: উজ্জ্বল ধরওবায়দুল কাদের বলেন, একসময় চট্টগ্রামকে বিএনপির ঘাঁটি বলা হতো, অাজ লাখ লাখ জনতা প্রমাণ করে দেয়, বিএনপির ঘাঁটি ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে আওয়ামী লীগ। বিএনপির ধানের শীষ পেটের বিষ, ধানের শীষ সাপের বিষ। কর্ণফুলী এখন অাওয়ামী লীগের, কর্ণফুলী এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।

বিএনপি নেতারা ছাত্র অান্দোলন, কোটা অান্দোলনে ভর করেছিল, কিন্তু কিছুই করতে পারেনি মন্তব্য করে আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, এসব অান্দোলনে গুজব ছড়ানো হয়েছিল, সেটা প্রমাণিত। তবে গুজব সন্ত্রাস এখনো অাছে। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থেকে গুজব সন্ত্রাসকে প্রতিরোধ করতে হবে। 
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জাতিসংঘ মহাসচিবের সঙ্গে সম্প্রতি বৈঠক করতে গেছেন দাবি করে মিথ্যাচার করেছেন অভিযোগ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, মির্জা ফখরুল দাবি করছেন জাতিসংঘ মহাসচিবের অামন্ত্রণে গেছেন, অথচ জাতিসংঘ মহাসচিব যুক্তরাষ্ট্রে ছিলেন না, ছিলেন ঘানায়, তারা তৃতীয় শ্রেণীর কর্মকর্তার সঙ্গে বৈঠক করেন, অাবার সেটা বলেন। এতেই প্রমাণ হয়, বিএনপি একটি ভুয়া দল, মির্জা ফখরুল ভুয়া।

বাংলাদেশ সময়: ১২৫৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২৩, ২০১৮
এসএম/এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa