[x]
[x]
ঢাকা, রবিবার, ৫ কার্তিক ১৪২৫, ২১ অক্টোবর ২০১৮
bangla news

‘সিনহার লেখায় প্রমাণিত বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নেই’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৯-২০ ৭:৩৪:৪৫ পিএম
জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের আলোচনায় নজরুল ইসলাম খান

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের আলোচনায় নজরুল ইসলাম খান

ঢাকা: বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার লেখা বইয়ের বক্তব্যই প্রমাণ করে বাংলাদেশে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

বৃহস্পতিবার (২০ সেপ্টেম্বর) বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ২০ দলীয় জোটের শরিক জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।
 
নজরুল ইসলাম বলেন, ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে গেছে যে তিনি (সুরেন্দ্র কুমার সিনহা) একটি বই লিখেছেন। সেই বই আমাজন নামে বিশ্বের সবচেয়ে বড়  প্রকাশনা সংস্থা প্রকাশ করেছে। তার মধ্যে উনি অনেক কথা লিখেছেন। সেসব কথা বিচার বিভাগের স্বাধীনতা প্রমাণ করে না। 
 
নজরুল ইসলাম খান বলেন, আইনে বিচার বিভাগ প্রশাসনের অধীনে নয়। কিন্তু বাস্তবে অবস্থা কী? নিম্ন আদালতের এক বিচারক তারেক রহমানকে খালাস দিয়েছিলেন- তিনি দেশে থাকতে পারেননি। সর্বোচ্চ আদালতে প্রধান বিচারপতিসহ সব বিচারপতিরা একমত হয়ে ষোড়শ সংশোধনী বাতিল করলেন। সেই রায়ে কিছু মন্তব্য করার জন্য প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগ ও দেশত্যাগে বাধ্য করা হয়েছে। তার অর্থ কী? বিরোধী রাজনৈতিক দল থাকতে পারবে না, স্বাধীন মিডিয়া থাকতে পারবে না, স্বাধীন বিচার বিভাগ থাকতে পারবে না। তাহলে গণতন্ত্র থাকবে কি করে?
 
‘বর্তমান রাজনৈতিক সংকট থেকে উত্তরণের একমাত্র পথ হলো খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সব দলের অংশগ্রহণে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন। নিরপেক্ষ-নির্দলীয় সরকার ছাড়া আওয়ামী লীগের অধীনে কোনো নিরপেক্ষ নির্বাচনের আশা করা যায় না। আর শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমেই এ সরকারকে বাধ্য করা হবে নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার।’
 
বিএনপির এই নেতা বলেন, যে নির্দলীয় সরকার প্রতিষ্ঠার জন্য আওয়ামী লীগ ১৭৩ দিন হরতাল করেছিল, দেশের অর্থনীতি ধ্বংস করেছিল, সংসদ বর্জন ও সংসদ থেকে পদত্যাগ করেছিল, সেই সরকার পদ্ধতি বাতিলের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ গণতন্ত্রের বিরুদ্ধেই অবস্থান নিয়েছে। জনগণের প্রয়োজনে সংবিধান। তাই জনগণের কল্যাণেই গণতন্ত্রের স্বার্থে সরকারকে নির্দলীয় সরকারের বিধান বাস্তবায়িত করতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।
 
জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি মুফতি জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন জমিয়তের সভাপতি মুফতি মুহম্মদ ওয়াক্কাস, জাতীয় পার্টি (কাজী জাফর) মহাসচিব মোস্তফা জামাল হায়দার, বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গোলাম মোস্তফা ভুইয়া, ডিএল সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, লেবার পার্টির মহাসচিব হামদুল্লাহ আল মেহেদী, এনডিপি ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, জমিয়তের নির্বাহী সভাপতি মাওলানা মুনছুরুল হাসান রায়পুরী, মহাসচিব মুফতি শেখ মুজিবুর রহমান প্রমুখ।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৯৩০ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২০, ২০১৮
এমএইচ/এএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache