ঢাকা, বুধবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৫ আগস্ট ২০২০, ১৪ জিলহজ ১৪৪১

বিএনপি

সিলেটে ‘বিদ্রোহীদের’ বসানোর চেষ্টায় ২০ দল

নাসির উদ্দিন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৭-১৪ ০২:১৪:৫৪ পিএম
সিলেটে ‘বিদ্রোহীদের’ বসানোর চেষ্টায় ২০ দল মাওলানা আব্দুর রকিব। ছবি: বাংলানিউজ

সিলেট: সিলেট সিটি করপোরেশন (সিসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে আরিফুল হক চৌধুরীই লড়বেন ২০ দলীয় জোটের তরফ থেকে। জোটের শরিক জামায়াতের নেতা এহসানুল মাহবুব জুবায়ের এবং বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত বদরুজ্জামান সেলিম স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মাঠে নামলেও শেষ পর্যন্ত তারা আরিফুলকে সমর্থন দিয়ে বসে যেতে পারেন। 

বাংলানিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন জেলার ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়কারী বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় সভাপতি, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ার‌ম্যান অ্যাডভোকেট মাওলানা আব্দুর রকিব।

তিনি বলেন, জামায়াত নেতা জুবায়েরকে বসানোর জন্য চেষ্টা চলছে।

২০ দলের কেন্দ্রীয় সমন্বয়কারী হিসেবে কেন্দ্র ও স্থানীয় পর্যায়ে আলাপ-আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি। সময় এলে জুবায়েরকেও অনুরোধ করবো আরিফুল হক চৌধুরীকে সমর্থন দিয়ে বসে যেতে।  

‘‌খালেদার মুক্তি দাবিতে সম্প্রতি পালিত বিএনপির অনশন কর্মসূচিতে জামায়াতের আন্তরিক অংশগ্রহণ বলে দেয় সিসিক নির্বাচনে ২০ দলকে রক্ষায় জামায়াত আন্তরিক হবে। ’ বলেন ২০ দলীয় জোটের সমন্বয়ক।  

বহিষ্কৃত বিএনপি নেতা সেলিমের সঙ্গে থাকা ২০ দলের নেতাকর্মীরা ‘তার বন্ধু মহল’ মন্তব্য করে মাওলানা রকিব বলেন, তাদের সেলিমের সঙ্গে দেখা গেলেও আরিফের পক্ষেই আছেন। যদিও জোটের প্রার্থীর ক্ষতি হচ্ছে। অবশ্য শেষ পর্যন্ত সেলিমকেও সন্তুষ্ট করা হবে এবং জুবায়ের-সেলিম ভোটের আগেই আরিফের গাড়িতে উঠবেন বলে আমরা আশাবাদী।

জুবায়ের ও সেলিম নির্বাচনে ‘ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দাঁড় করানো প্রার্থী’ বলে যে গুঞ্জন ছড়িয়েছে সে বিষয়ে মাওলানা রকিব বলেন, সেলিমের সঙ্গে কারা চলে জানি না। তবে জুবায়েরের পক্ষে কিছু লোক আছেন, যারা আওয়ামী লীগের পক্ষে কাজ করেন। অবশ্য নির্বাচন গণতান্ত্রিক অধিকার, যে কেউ যে কারও সঙ্গে যেতে পারেন।  

আরিফুলের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয় উদ্বোধনকালে দেওয়া বক্তব্যের জের টেনে তিনি বলেন, কেউ যেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা থেকে শুরু করে দলমত নির্বিশেষে কারও বিরুদ্ধে বিষোদগার করে কথা না বলেন।  

মাওলানা রকিব বলেন, সিলেট সিটি করপোরেশনে ২০ দলের মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী। তাই ২০ দলের নেতাকর্মী আরিফুল হকের প্রচার-প্রচারণায়ই আছেন। জোটের কেন্দ্রীয় নেতারাও একসঙ্গে সিলেটে আসবেন প্রচারণায়।  

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে বিএনপির যে সংশয়, সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সিলেট পবিত্র জায়গা। ২০ দল ছাড়াও উভয় পক্ষে বলছে আধ্যাত্মিক রাজধানী। আশা করি এখানে অপরাধমূলক কাজ কোনো দল করবে না। পুণ্যভূমিতে অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ নির্বাচনে সরকার বেআইনিভাবে হস্তক্ষেপও করবে না। যদি করে, তাহলে পরবর্তীতে এর ফল ভাল হবে না।  

বিগত নির্বাচনে মেয়র পদে বিজয়ী আরিফুল এবারও বিপুল ভোটের ব্যবধানে জিতে যাবেন বলে আশাবাদী ২০ দলীয় জোটের এ সমন্বয়কারী।  

বাংলাদেশ সময়: ২০০৪ ঘণ্টা, জুলাই ১৪, ২০১৮
এনইউ/এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa