[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

‘নায়ক’ সিনেমার মতো একদিন ক্ষমতা ছেড়ে দেখুন!

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৭-১০ ৪:৪৪:২৩ এএম
৯০’এর ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের নেতৃবৃন্দ আয়োজিত আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল। ছবি: শাকিল আহমেদ

৯০’এর ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের নেতৃবৃন্দ আয়োজিত আলোচনা সভায় মির্জা ফখরুল। ছবি: শাকিল আহমেদ

ঢাকা: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশনেত্রী খালেদা জিয়াকে জেলে আটকে রাখতে পারবেন না, ইতিহাস তা বলে না। জনগণই কারাগার ভেঙে তাকে মুক্ত করে আনবে।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ৯০’এর ডাকসু ও সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্যের নেতৃবৃন্দ আয়োজিত আলোচনা সভায় একথা বলেন মির্জা ফখরুল।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, যে জগদ্দল পাথর আমাদের ওপর চেপে বসেছে এটা শুধু খালেদা জিয়া বা তারেক রহমানের সমস্যা নয়, এটা পুরো জাতির সমস্যা। তাই পুরো জাতিকে ঐক্যবদ্ধ করেই এদের সরাতে হবে।

খালেদা জিয়ার জন্য দেশের মানুষ কোনো চিন্তা করে না, ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্য দুঃখজনক উল্লেখ করে মির্জা ফখরুল বলেন, এ ধরনের কথা কোনো রাজনৈতিক সচেতন মানুষের বলা উচিত না। খালেদা জিয়ার জন্য ঘরে ঘরে মানুষ কাঁদে, রোজা রাখে।

বলিউডের ‘নায়ক’ সিনেমার কথা উল্লেখ করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, একদিনের জন্য ক্ষমতা ছেড়ে দিয়ে দেখেন কী অবস্থা হয়!

নির্বানের ব্যাপারে ফখরুল আবারও বলেন, দেশনেত্রীর মুক্তি ছাড়া আমরা নির্বাচনে যাব না। নির্বাচনে অবশ্যই যাব, কিন্তু লেভেল প্লেইং ফিল্ড হতে হবে। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন হতে হবে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে, সেনাবাহিনী মোতায়েন করতে হবে। আর সবার আগে খালেদা জিয়ারসহ সকল রাজবন্দীকে মুক্তি দিতে হবে।

খালেদা জিয়া কেন জেলে এটা আমরা সবাই জানি মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু সব সময় একটা কথা বলেন, খালেদা জিয়াকে রাজনীতি থেকে বিদায় করতে হবে। এটা সুদূর প্রসারী পরিকল্পনা। খালেদা জনগণের কথা বলেন, গণতন্ত্রের কথা বলেন। সেজন্যই তার বিরুদ্ধে মামলাগুলো সাজানো হয়েছে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, হতাশ হবেন না, হতাশাই শেষ কথা নয়। সত্য ও সঠিক পথে আছি। মানুষের জন্য মানুষের পথে আছি। অবশ্যই সফল হব। 
 
ডাকসুর সাবেক ভিপি ও বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমান উল্লাহ আমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ’৯০-এর ছাত্রনেতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, নাজিম উদ্দিন আলম, খোন্দকার লুৎফর রহমান, আসাদুর রহমান আসাদ, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, রফিক সিকদার ও শাহজাহান মিয়া সম্রাট প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩৫ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০১৮
এমএইচ/এমজেএফ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa