[x]
[x]
ঢাকা, শনিবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৫, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

রাসিক নির্বাচন: মনোনয়নপত্র জমা দিলেন বুলবুল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০৬-২৮ ৭:৪০:৪৫ এএম
মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, ছবি: বাংলানিউজ

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেছেন মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল, ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) নির্বাচনে আবার মেয়র পদে লড়তে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন মহানগর বিএনপির সভাপতি মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল।

মনোনয়নপত্র সংগ্রহ ও জমা দেওয়ার শেষ দিন বৃহস্পতিবার (২৮ জুন) বিকেল ৪টার দিকে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার কার্যালয়ে গিয়ে রিটার্নিং অফিসার সৈয়দ আমিরুল ইসলামের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন বুলবুল।

এর আগে দুপুরে ১৪ দলের প্রার্থী মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন এবং জাতীয় পার্টির প্রার্থী ওয়াসিউর রহমান দোলনও মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। এছাড়া নির্বাচনে অংশ নিতে মহানগর যুবদল সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সুইটের পক্ষেও মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা হয়েছিল। তবে তিনি জমা দেননি।

মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুলের মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার আগে মহানগর বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে বৈঠক করেন বিএনপি নেতারা। বৈঠকে যুবদল নেতা সুইটের মনোনয়নপত্র জমা না দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। পরে সদ্য সাবেক মেয়র বুলবুল গিয়ে তার মনোনয়নপত্র দাখিল করেন। এ সময় যুবদল নেতা সুইটও উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক সিটি মেয়র মিজানুর রহমান মিনু, বিএনপির রাজশাহী বিভাগের সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শাহীন শওকত, জেলা বিএনপির সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন তপু, মহানগরের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শফিকুল হক মিলন।

মনোনয়নপত্র জমা দেওয়ার পর ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী মোহাম্মদ মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল বলেন, নির্বাচন কমিশনের প্রতি তাদের কোনো আস্থা নেই। তবে ভোট সুষ্ঠু হলে রাজশাহীতে ধানের শীষ প্রতীকের বিজয় নিশ্চিত। নির্বাচনে অংশ নেওয়াকে বিএনপি দলের কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির আন্দোলনের একটা অংশ হিসেবে নিয়েছে। আর সে জন্যই কমিশনের প্রতি আস্থা না থাকলেও তিনি রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

এদিকে, ১৯৯১ থেকে ২০০৭ সাল পর্যন্ত একটানা ১৬ বছর রাসিকের মেয়র ছিলেন বিএনপি নেতা মিজানুর রহমান মিনু। ২০০৮ সালের নির্বাচনে তিনি কারাগারে থাকায় নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি। তাই দলীয় সমর্থন পেয়ে প্রথমবারের মতো মেয়র পদে লড়াইয়ের সুযোগ পান মহানগর যুবদলের তৎকালীন সভাপতি মোসাদ্দেক হোসেন বুলবুল। তবে সে নির্বাচনে তিনি মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটনের কাছে পরাজিত হন। পর ২০১৩ সালের নির্বাচনে অংশ নিয়ে লিটনকে পরাজিত করেন বুলবুল।

কিন্তু দায়িত্বগ্রহণের পর ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত হওয়ায় বুলবুল মেয়র পদ থেকে বরখাস্ত হন একাধিকবার। দু’দফায় জেলখাটেন প্রায় ৬ মাস। পাঁচ বছরের মধ্যে সবমিলিয়ে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন ২৬ মাস। এবার নির্বাচনেও অংশ নিতে রাজশাহী থেকে একমাত্র ব্যক্তি হিসেবে তিনি বিএনপির মনোনয়নপত্র কিনেছিলেন।

দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার পর আগামী ৩০ জুলাইয়ের নির্বাচনে অংশ নিতে বুধবার (২৭ জুন) তিনি মেয়র পদ থেকে পদত্যাগ করেন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল আনুযায়ী মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন ২৮ জুন; মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই ১ ও ২ জুলাই; প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ তারিখ ৯ জুলাই এবং ১০ জুলাই প্রতীক বরাদ্দ শেষ করা হবে। আগামী ৩০ জুলাই রাসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, জুন ২৮, ২০১৮
এসএস/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa