ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

চণ্ডালনীতিতে দেশ চালাচ্ছে সরকার: দেলোয়ার

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৮-২৭ ৬:১৯:০৫ পিএম

মালিবাগ হত্যাকাণ্ডের আসামিদের রাজনৈতিক বিবেচনায় মুক্তি এবং মির্জা আব্বাসকে আদালত জামিন দেওয়া সত্ত্বেও তাকে মুক্তি না দিয়ে আরও দুটি মামলায় গ্রেপ্তার করাকে চণ্ডালনীতি উল্লেখ করে সরকারের সমালোচনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন।

ঢাকা: মালিবাগ হত্যাকাণ্ডের আসামিদের রাজনৈতিক বিবেচনায় মুক্তি এবং মির্জা আব্বাসকে আদালত জামিন দেওয়া সত্ত্বেও তাকে মুক্তি না দিয়ে আরও দুটি মামলায় গ্রেপ্তার করাকে চণ্ডালনীতি উল্লেখ করে সরকারের সমালোচনা করেছেন বিএনপির মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন।

আজ শনিবার বেলা আড়াইটায় বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি সরকারের এ সমালোচনা করেন।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ২০০১ মালিবাগ হত্যাকাণ্ড মামলায় ডা. ইকবাল ও এমপি শাওনসহ অন্য আসামিদের মুক্তি দেওয়া হয়। অপরদিকে, হরতালে গাড়ি পোড়ানোর অভিযোগে আরও দুটি মামলায় শনিবার মির্জা আব্বাসকে গ্রেপ্তার,দেখানো হয়।

সাংবাদিক সম্মেলনে খন্দকার দেলোয়ার বলেন, ‘আদালত মির্জা আব্বাসকে চারটি মামলায় জামিন দিলেও তাকে মুক্তি না দিয়ে আরও দুটি নতুন মামলায় গ্রেপ্তার করেছে (দেখিয়েছে)।’

তিনি বলেন, ‘মির্জা আব্বাসের জামিনে মুক্তির আদেশ কারাগারে পৌঁছুলেও উপরের নির্দেশ না পাওয়ায় কারা কর্তৃপক্ষ তাকে মুক্তি দিচ্ছে না।’

এ প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সরকার আদালতের নির্দেশ অমান্য করছে বলে অভিযোগ করেন দেলোয়ার।

তিনি আরও বলেন, ‘এটা সরকারের অগণতান্ত্রিক ও হীন রাজনৈতিক মানসিকতার পরিচয়।’

মালিবাগ হত্যাকাণ্ডের আসামিদের মুক্তির প্রতিবাদ জানিয়ে সরকারের কাছে তাদের বিচারের দাবি জানান।

খোন্দকার দেলোয়ার বলেন, ‘এরই মধ্যে নিজ দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া ছয় হাজার মামলা প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এদের মধ্যে খুনি, নারী নির্যাতনকারী ও  ধর্ষণকারী রয়েছে।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এসব অপরাধীকে ছেড়ে দেওয়ায় আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি অবনতি ঘটছে। অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে তার দায় বিএনপির ঘাড়ে চাপানোর চক্রান্ত করছে আওয়ামী লীগ।’

তিনি অভিযোগ করেন, ‘আসলে সরকার চাচ্ছে না এ দেশে জিয়াউর রহমানের পরিবার রাজনীতি করুক। বিএনপিকে ধ্বংস করার জন্যই সরকার এসব চক্রান্ত করছে।’

গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানি সঙ্কটের কথা উল্লেখ করে খোন্দকার দেলোয়ার বলেন, ‘সরকার গণতন্ত্রের সব পথ বন্ধ করে দলীয়করণের চূড়ান্ত পর্যায়ে পৌঁছেছে। জনগণের জন্য কোনো দায়িত্বই পালন করছে না তারা।’

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, যুবদল সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা শামসুজ্জামান দুদু, ঢাকা জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট সানাউল্লাহ মিয়া সাংবাদিক সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৫২০ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-08-27 18:19:05