[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news

মামলা বাতিল করতে খালেদা ১৩ বার হাইকোর্টে গেছেন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৮-০২-২৫ ৮:১৮:০৪ এএম
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক

টাঙ্গাইল: আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘খালেদা জিয়া ১৩ বার হাইকোর্টে গেছেন মামলা বাতিল করার জন্য। ১৯৯১ থেকে শুরু হয়ে ২০১৮ সালে এসে মামলাটির রায় হয়েছে। আদালত খালেদাকে সাজা দিয়েছেন। এখানে সরকারের কোনো দায়-দায়িত্ব নেই।’

তিনি বলেন, ‘খালেদার রায়ের বিরুদ্ধে বিএনপি যত আন্দোলনই করুক না কেন, তারা কিছুই করতে পারবে না। আমরা রাজনৈতিকভাবে তাদের আন্দোলন প্রতিহত করব।’

রোববার (২৫ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে স্থানীয় শহীদ স্মৃতি পৌর উদ্যানে টাঙ্গাইল জেলা শ্রমিক ফেডারেশনের প্রয়াত সভাপতি মীর লুৎফর রহামান লালজু’র স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুর রাজ্জাক এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের আওতায় নির্বাচন কমিশনের পরিচালনায় আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আদালতের রায় অনুযায়ী খালেদা জিয়াকে দুর্নীতির কলঙ্ক নিয়েই নির্বাচনে যেতে হবে।

আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ১৯৯১ সালে এতিমদের জন্য বিদেশ থেকে টাকা এসেছিল সরকারের কোষাগারে। সে টাকা কোনো এতিমখানায় না দিয়ে ব্যক্তিগত একাউন্টে রাখা হয়েছে। এ দুর্নীতির বিচার আদালতে ৬০ দিনের মধ্যে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সেই ৬০ দিনের বিচার হয়েছে ২৬১ দিনে এবং ৬১টি কর্মদিবসে।

ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি বালা মিয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য রাখেন- জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক, সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের), বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী, ফেডারেশনের উপদেষ্টা আব্দুস সবুর খান বীরবিক্রম, ছানোয়ার হোসেন এমপি, পৌরসভার মেয়র জামিলুর রহমান মিরন, সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান খোরশেদ আলম, টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি জাফর আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আশরাফুজ্জামান স্মৃতি ও নাহার আহমদ, জেলা বাস-কোচ-মিনিবাস মালিক সমিতির মহাসচিব গোলাম কিবরিয়া বড় মনির প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৯১৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০১৮
টিএ

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa