ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

রংপুরে পিটুনিতে আহত ওয়ার্ড আ’লীগ সভাপতির মৃত্যু

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৫-২২ ৪:১৬:২০ এএম

রংপুর সদর উপজেলায় দু’দিন আগে পিটুনিতে আহত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য আবুল হোসেনের (৫৫) মৃত্যু হয়েছে।

রংপুর: রংপুর সদর উপজেলায় দু’দিন আগে পিটুনিতে আহত ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য আবুল হোসেনের (৫৫) মৃত্যু হয়েছে।

 

পারিবারিক কলহের বিচার করতে গিয়ে উপজেলার হরিদেবপুর ইউনিয়নের গৈকুল গ্রামে শুক্রবার (২০ মে) বেধড়ক পিটুনির শিকার হন তিনি। রোববার (২২ মে) ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় আবুলের।

তিনি গৈকুলপুর গ্রামের মৃত পতা শেখের ছেলে। তাকে হত্যায় প্রধান অভিযুক্ত দুই ভাইয়ের নাম এরশাদ মিয়া ও মমিনুল ইসলাম।

এলাকাবাসী জানান, পারিবারিক কলহের বিচার করতে শুক্রবার রাতে আবুল হোসেনকে ডেকে নিয়ে যান মমিনুল। কিন্তু বিচার মনোপূত না হওয়ায় মমিনুল ও তার ভাই এরশাদ মিয়া নিজেদের লোকজন নিয়ে আবুলকে রড দিয়ে পিটিয়ে রক্তাক্ত করেন। ‍

তৎক্ষণাৎ তাকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আবুলের ভাতিজা শাহিদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, শুক্রবার রাতে আহত হওয়ার পর তার চাচা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছিলেন। রোববার ভোর ৫টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু হয় তার।

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এবিএম জাহিদুল ইসলাম বাংলানিউজকে জানান, দু’দিন আগে ওই ইউপি সদস্যকে বিচার নিয়ে পেটানো হয়। রোববার ভোরে তার মৃত্যু হয়।

ওসি জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত রিপোর্ট এলে ঘটনার সত্যতা পাওয়া যাবে।

এ ঘটনায় আবুলের বড় ছেলে রবিউল ইসলাম বাদী হয়ে ছয়জনকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০২ ঘণ্টা মে ২২, ২০১৬
এইচএ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2016-05-22 04:16:20