bangla news

খালেদাকে খুঁটি করে জঙ্গি তৎপরতা চলছে: ইনু

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৫-০৪ ৪:০২:১৩ এএম

বিএনপি ও এর চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ঘাঁটি ও খুঁটি করে দেশে সন্ত্রাসী ও জঙ্গি তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

ঢাকা: বিএনপি ও এর চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে ঘাঁটি ও খুঁটি করে দেশে সন্ত্রাসী ও জঙ্গি তৎপরতা চালানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেছেন, স্বাধীনতার পরাজিত শক্তি জঙ্গিবাদি, সাম্প্রদায়িক, রাজাকার গোষ্ঠী খালেদা জিয়ার ছাতার তলে আশ্রয় নিয়েছে। তারা সরকারের বিরুদ্ধে, দেশের বিরুদ্ধে সংবিধানের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। তারা বিএনপি ও খালেদা জিয়াকে ঘাঁটি ও খুঁটি বানিয়ে প্রকাশ্যে যুদ্ধ চালাচ্ছে।

হাসানুল হক ইনু বুধবার(৪ মে) সাম্যবাদী দলের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স রুমে এ সংবর্ধনা আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক সাবেক মন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া।

এ অনুষ্ঠানে হাসানুল হক ইনু আরও বলেন,  এই জঙ্গিবাদি সন্ত্রাসের ম‍ূল লক্ষ্য শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকারকে উৎখাত করা, যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বন্ধ করা, সংবিধান ও রাষ্ট্রকে ধ্বংস করা। এই চক্রান্তের নতুন কৌশল আমরা দেখতে পাচ্ছি গুপ্ত হত্যা। সাম্প্রতিকালের গুপ্ত হত্যার ঘটনা ও জঙ্গিবাদি সন্ত্রাস প্রমাণ করে- বাংলাদেশের বিপদ এখনও কাটেনি। এই গুপ্ত হত্যা বড় ধরনের রাজনৈতিক খেলা। বিভিন্ন সময় সামরিক সরকার ও খালেদা জিয়ার হাত ধরে স্বাধীনতা বিরোধী শক্তি ও জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটেছে। খালেদা জিয়া ও বিএনপি রাজাকার ও সন্ত্রাসী জঙ্গিবাদিদের সঙ্গে সন্ধি চুক্তিতে আবদ্ধ হয়ে আছে। এটাই বাংলাদেশের জন্য বড় বিপদ। যত দিন এই সন্ধি চুক্তি থাকবে ততদিন খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে সন্দেহের চোখে দেখবো।

হাসানুল হক ইনু সকলকে বামপন্থি দলের পতাকা তলে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, জঙ্গিবাদ বিরোধী জাতীয় সংগ্রাম চলছে। এই সংগ্রামে আপনারা বামপন্থি দলের ছাতার তলে সমবেত হন। তাহলে জঙ্গিবাদ বিরোধী আন্দোলন বেগবান হবে।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে দিলীপ বড়ুয়া বলেন, সমাজ বিপ্লবের অঙ্গিকার নিয়ে আমরা কাজ করছি। জঙ্গিবাদ, মৌলবাদের বিরুদ্ধে সংগ্রাম চলছে। এই সংগ্রামকে সমাজ বিপ্লবের সংগ্রামের দিকে অগ্রসর করতে হবে। দেশ স্বাধীন হয়েছে. কিন্তু বেকারত্ব দূর হয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৫৮ ঘণ্টা, মে ৪, ২০১৬
এসকে/জেডএম

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2016-05-04 04:02:13