bangla news

শফিক রেহমানকে মুক্তি না দিলে কঠোর কর্মসূচি

সিনিয়র স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৪-১৬ ৫:৪৮:১১ এএম

সাংবাদিক শফিক রেহমান ও গাজীপুরের মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নানকে মুক্তি না দিলে বিএনপি কঠোর কর্মস‍ূচি ঘোষণা করবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

ঢাকা: সাংবাদিক শফিক রেহমান ও গাজীপুরের মেয়র অধ্যাপক এমএ মান্নানকে মুক্তি না দিলে বিএনপি কঠোর কর্মস‍ূচি ঘোষণা করবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করলেন দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

শনিবার (১৬ এপ্রিল) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

শফিক রেহমান ও অধ্যাপক মান্নানের গ্রেফতারের প্রতিবাদে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

রিজভী বলেন, ‘সরকারের ব্যর্থতা ঢাকতেই সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে’। ‘আমরা যারা গণতন্ত্রের জন্য লড়াই করছি তাদের জীবন-যাপন নিরাপদ নয়। আর যারা সরকারের অপকর্ম ও অপশাসনের খবরাখবর লেখেন তারাও নিরাপদ নয়। সরকারের সর্বশেষ নির্যাতনের শিকার হলেন শফিক রেহমান। তাকে গ্রেফতার করা সরকারের চৈতন্য লোপের শামিল।’

তিনি বলেন, ‘শফিক রেহমানকে গ্রেফতার একটি ঘৃণ্য নাটক। সরকার কোনো দিক সামাল দিতে পারছে না। তার মতো একজন গুণী ব্যক্তিকে গ্রেফতার করে সরকারের ব্যর্থতাকে আড়াল করার চেষ্টা করছে। গ্রেফতারের ঘটনায় বিএনপির পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানাচ্ছি। যে মিথ্যা মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে অবিলম্বে তা প্রত্যাহার করে মুক্তির দাবি জানাচ্ছি।’

প্রধানমন্ত্রীকে স্মরণ করিয়ে দিয়ে রিজভী বলেন, ‘শফিক রেহমানের বাবা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বাবার (শেখ মুজিবুর রহমানের) শিক্ষক ছিলেন। গুণীজনদের যদি এ পরিণতি হয় তাহলে কোন শকুনিরা দেশ চালাচ্ছে। এ দেশকে কারা ছিড়ে টুকরো টুকরো করছে। বিশিষ্ট সাংবাদিক শফিক রহমান গ্রেফতার হলে সাধারণ মানুষের জীবনের নিরাপত্তা কোথায়? অবস্থাদৃষ্টে মনে হয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও তার পরিবার ছাড়া এ দেশে কারো সম্মান ও বাস করার অধিকার নেই।’

শনিবার সকাল সোয়া ৮টার দিকে সাংবাদিক শফিক রেহমানকে তার ইস্কাটনের বাসা থেকে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেওয়া হয়েছে বলে পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়। পরে ঢাকা মহানগর পুলিশের জনসংযোগ বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার গণমাধ্যমকে জানান, পল্টন থানার রাষ্টদ্রোহ একটি মামলায় তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে শুক্রবার (১৫ এপিল) রাত ৯টার দিকে গাজীপুর থেকে ঢাকা আসার পথে মেয়র মান্নানকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে রিজভী বলেন, ‘বর্তমান অবৈধ ভোটারবিহীন সরকার নির্বাচিত প্রতিনিধিদের দেখতে পারে না।

তাই গাজীপুরের নির্বাচিত মেয়র অধ্যাপক এম এ মান্নানকে গ্রেফতার করেছে। দীর্ঘ এক বছরের বেশি সময় কারাভোগের পর তাকে ফের গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।’

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন-  বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ডা. এজেড এম জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাসুদ আহমেদ তালুকদার, সহ-দফতর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৪০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৬
এমএম/বিএস

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2016-04-16 05:48:11