bangla news

আদালতের হাজতখানায় শফিক রেহমান

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৪-১৬ ৪:৩১:৪৮ এএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ করে হত্যা চেষ্টার মামলায় গ্রেফতারকৃত বিশিষ্ট সাংবাদিক শফিক রেহমানকে ঢাকার সিএমএম আদালতে নেওয়া হয়েছে। তাকে রাখা হয়েছে আদালতের হাজতখানায়।

ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ করে হত্যা চেষ্টার মামলায় গ্রেফতারকৃত বিশিষ্ট সাংবাদিক শফিক রেহমানকে ঢাকার সিএমএম আদালতে নেওয়া হয়েছে। তাকে রাখা হয়েছে আদালতের হাজতখানায়।

তার সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন জানাবে বলে জানিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ।

পল্টন থানায় গত বছরের আগস্টে দায়ের হওয়া ওই মামলায় শনিবার (১৬ এপ্রিল) সকাল ৮টায় শফিক রহমানকে গ্রেফতার করে ডিবি পুলিশের একটি দল। রাজধানীর মিন্টু রোডের ডিবি কার্যালয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে দুপুর দুইটার দিকে তাকে নিয়ে ঢাকার সিএমএম আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা হয় পুলিশ। দুইটা ২০ মিনিটের দিকে আদালতের হাজতখানায় এনে রাখা হয়েছে শফিক রেহমানকে।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ডিবি’র এএসপি হাসান আরাফাত তাকে আদালতে হাজির করে সাতদিনের রিমান্ডের আবেদন জানাবেন বলে জানান ডিবি’র উপ-কমিশনার (ডিসি) মাসরুকুর রহমান খালেদ।

মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মাজহারুল ইসলামের আদালতে রিমান্ডের আবেদনের শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

শফিক রেহমান বিএনপির নীতিনির্ধারক পর্যায়ের একজন বুদ্ধিজীবী হিসেবে পরিচিত। তিনি বিএনপির আন্তর্জাতিক বিষয়গুলো দেখতেন বলেও দাবি করেছে বিএনপি।

এদিকে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিডিয়া সেন্টারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ডিবি’র অপর উপ-কমিশনার মারুফ হোসেন সরদার দাবি করেন, শফিক রেহমান ২০১৩ সালে যুক্তরাষ্ট্র গিয়ে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ করে হত্যার পরিকল্পনা করেছিলেন।

দুই উপ-কমিশনার জানান, ২০১৫ সালের ০৩ আগস্ট সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ করে হত্যা চেষ্টার প্রেক্ষিতে পল্টন থানায় একটি মামলা করা হয়। মামলাটিতে বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাসাদের সহ সভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মামুনের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাতনামাদের আসামি করা হয়েছিলো। এ মামলার প্রথম তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন পল্টন থানার এসআই মোজাম্মেল হক। পরে মামলার তদন্তভার পায় ডিবি পুলিশ।

তারা জানান, মামলার সাক্ষগ্রহণের পর তদন্ত কর্মকর্তা যুক্তরাষ্ট্রের ওই হামলার ঘটনায় শফিক রেহমানের সংশ্লিষ্টতা খুঁজে পান। তদন্তে সম্পৃক্ততা পাওয়ায় তাকে আসামি তালিকাভুক্ত করে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শফিক রেহমানের স্ত্রী তালেয়া রেহমান ডিবি কার্যালয়ে গিয়ে তার সঙ্গে দেখা করে এসেছেন বলেও জানান মাসরুকুর রহমান খালেদ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৩০ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৬, ২০১৬
এমআই/এনএ/এসজেএ/এএসআর
 

** শফিক রেহমানকে আদালতে নেওয়া হচ্ছে
** শফিক রেহমানের সাতদিনের রিমান্ড চাইবে পুলিশ
** জয়কে হত্যাচেষ্টা মামলায় শফিক রেহমান গ্রেফতার
**শফিক রেহমানকে নিয়ে গেছে ‘ডিবি’, দাবি পরিবারের

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2016-04-16 04:31:48