ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
bangla news

আরও তিন মামলায় জামিন চাইলেন খালেদা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬-০৪-০৫ ২:২৩:৫৪ এএম
ছবি: জি এম মুজিবুর-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: জি এম মুজিবুর-বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

দুই মামলায় জামিন নেওয়ার পর আরও তিন মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চেয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। মঙ্গলবার (০৫ এপ্রিল) গ্যাটকো দুর্নীতি ও  যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে যাত্রী হত্যার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন পৃথক দু’টি আদালত।

ঢাকা: দুই মামলায় জামিন নেওয়ার পর আরও তিন মামলায় আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন চেয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

 

মঙ্গলবার (০৫ এপ্রিল) গ্যাটকো দুর্নীতি ও  যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে যাত্রী হত্যার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় তার জামিন মঞ্জুর করেন পৃথক দু’টি আদালত। বেলা ১২টা ৫ মিনিটে ঢাকার সিএমএম আদালতে হাজির হয়েছেন খালেদা। তিনটি মামলায় পর্যায়ক্রমে পৃথক পৃথক ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতে তার জামিনের আবেদনের শুনানি হবে বলে জানিয়েছেন আইনজীবীরা।

 

ওই তিন মামলার মধ্যে রয়েছে- যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে যাত্রী হত্যার ঘটনায় দায়ের করা পৃথক একটি হত্যা মামলা (মামলা নম্বর ৫৮)। এ মামলায় খালেদাসহ ৩৮ আসামির বিরুদ্ধে হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক পৃথক আরও দু’টি চার্জশিট দিয়েছে পুলিশ। এ মামলায়ও জামিন চাইবেন খালেদা জিয়া।

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খানের মিছিলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় খালেদা জিয়াসহ ১৩ জনের বিরুদ্ধে গুলশান থানায় দায়ের করা মামলাটিতে সমন জারি করা হয় আসামিদের বিরুদ্ধে।

মুক্তিযুদ্ধে শহীদদের সংখ্যা নিয়ে কটূক্তি করায় ঢাকার সিএমএম আদালতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদন নিয়ে খালেদার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহের মামলাটি দায়ের করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোমতাজ উদ্দিন আহমদ মেহেদী। এ মামলায়ও হাজির হতে সমন জারি করা হয়েছে খালেদা জিয়ার প্রতি।

 
এর আগে বেলা পৌনে ১২টায় শুনানি শেষে গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেন ঢাকার ৩ নম্বর বিশেষ জজ আবু আহমেদ জমাদারের আদালত।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়াকে আগামী ১৩ এপ্রিলের মধ্যে বিচারিক আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেওয়া হয়। এ নির্দেশনা অনুসারে বেলা সাড়ে ১১টায় আত্মসমর্পণ করে জামিন চান খালেদা।
 

এর আগে বেলা সোয়া ১১টায় রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোল বোমা মেরে যাত্রী হত্যার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায়ও জামিন পান খালেদা জিয়া। শুনানি শেষে এ জামিন মঞ্জুর করেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কামরুল হোসেন মোল্লার আদালত। একই সঙ্গে জামিন পান খন্দকার মাহবুব হোসেনও।

সকাল ১০টা ৪২ মিনিটে যাত্রাবাড়ী থানার বাসে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে যাত্রী হত্যার ঘটনায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের ওই মামলায় (মামলা নম্বর ৫৯) আত্মসমর্পণ করে জামিন চান খালেদা।

গত বুধবার (৩০ মার্চ) এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ পলাতক ২৮ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন একই আদালত। মামলাটির মোট আসামি ৩৮ জন।

মঙ্গলবার সকাল ১০টা ১৮ মিনিটে আদালত চত্বরে পৌঁছান খালেদা। এর আগে সকাল ৯টা ২০ মিনিটে তিনি গুলশানের বাসা থেকে আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা দেন।

৫টি মামলায় খালেদা জিয়ার আদালতে হাজিরা দেওয়াকে কেন্দ্র করে রাজধানীর গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। বাংলানিউজকে এ তথ্য জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মিডিয়া সেন্টারের উপ-পুলিশ কমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার।

বাংলাদেশ সময়: ১২২২ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৫, ২০১৬
ইএস/বিএস/এএসআর

** গ্যাটকো দুর্নীতি মামলায়ও জামিন পেলেন খালেদা
** যাত্রী হত্যার মামলায় জামিন পেলেন খালেদা
** এজলাসকক্ষে খালেদা
** ৫ মামলায় জামিন নিতে আদালতে খালেদা

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2016-04-05 02:23:54