[x]
[x]
ঢাকা, শুক্রবার, ৬ আশ্বিন ১৪২৫, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮
bangla news
মেয়রের ইন্টারভিউ

মানুষকে সঙ্গে নিয়ে উন্নয়ন চান উজিরপুরের গিয়াস

|
আপডেট: ২০১৬-০৩-১৬ ১০:২৪:০০ পিএম
ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

জনগণ ভালবাসে বিধায় আমাকে ভোটের মাধ্যমে জয়যুক্ত করে তাদের প্রতিনিধি করেছেন। তাই তাদের সঙ্গে নিয়েই পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যেতে হবে। জনগণের সেবক হয়েই কাজ করে যেতে চাই।

বরিশাল: জনগণ ভালবাসে বিধায় আমাকে ভোটের মাধ্যমে জয়যুক্ত করে তাদের প্রতিনিধি করেছেন। তাই তাদের সঙ্গে নিয়েই পৌরসভার সার্বিক উন্নয়নে কাজ করে যেতে হবে। জনগণের সেবক হয়েই কাজ করে যেতে চাই।

সম্প্রতি বাংলানিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেন বরিশালের উজিরপুর পৌরসভার প্রথম মেয়র  মো. গিয়াস উদ্দিন বেপারী।

তিনি বলেন, বরিশালের ৬ পৌরসভার মধ্যে উজিরপুর পৌরসভায় প্রথমবারের মতো মেয়র নির্বাচন হয়েছে। তাও দলীয়ভাবে। তিনি আওয়ামী লীগের হয়ে জয়লাভ করেছেন।

এলাকার উন্নয়নকাজ বিষয়ে তিনি বলেন, জনপ্রিয়তা রয়েছে বিধায় মানুষ আমাকে বিপুল ভোটে জয়যুক্ত করেছেন। আগেও সাধারণ মানুষ হিসেবে সবার সঙ্গে ছিলাম, এখনও আছি।

তিনি বলেন, প্রথম পৌরসভা প্রথম মেয়রের দায়িত্ব, সবকিছু বুঝে উঠতে কিছুটা সময় লাগতে পারে। তাই চিন্তাভাবনা রয়েছে সবাইকে নিয়ে সুন্দর ও সুষ্ঠু পরিকল্পনার মাধ্যমে প্রতিটি কাজ অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সম্পাদন করার। তবে সর্বপ্রথম দীর্ঘদিনের ভাঙা সড়কগুলো সংস্কারের মধ্য দিয়ে উন্নয়নের যাত্রা শুরু করা হবে।

পাশাপাশি বিদ্যুৎ, পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থাপনাসহ সবকিছুই  সঠিক পরিকল্পনার মাধ্যমে সম্পন্ন করে নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা হবে বলে তিনি জানান।

পৌর ভবনের নিজস্ব জায়গা ও ভবন না থাকা প্রসঙ্গে পৌরসভার প্রথম মেয়র বলেন, এই পৌরসভার বর্তমান কার্যক্রম দুই কক্ষের একটি ভাড়া বাসা থেকে চলছে। জায়গা নির্ধারণ ও ভবন নির্মাণের বিষয়ে ইতোমধ্যে আলোচনা শুরু করেছেন তিনি।

মাদকের বিষয়ে তিনি বলেন, শপথ অনুষ্ঠানের দিনই আমিসহ কাউন্সিলররা পৌরসভাকে মাদকমুক্ত করতে তারা কাজ করে যাবেন। এক্ষেত্রে নিজের পরিবারের সদস্যদের থেকে শুরু করে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না।

শিশু-কিশোরদের পড়াশোনা ও খেলাধুলার বিষয়ে মেয়র গিয়াস উদ্দিন বলেন, উজিরপুরের শিশু থেকে শুরু করে তরুণরা  পড়ালেখা ও খেলাধুলার মধ্যে সুন্দর-সাবলীল জীবন-যাপন করবে এটা সবার প্রত্যাশা। এ কাজকে আরো বেগবান করতে প্রতিটি বিদ্যালয়ে নিয়মিত খেলাধুলা-শিক্ষাসফরসহ সব কাজে সার্বিক সহযোগিতা করা হবে।

তিনি জানান, বেকার যুবসমাজ ও হতদরিদ্রদের নিয়ে সরকারের গৃহীত প্রতিটি প্রকল্প উজিরপুরের মানুষ পাবে। পৌরসভার হাতে যেটুকু সুযোগ থাকবে তা সবই বেকার ও দরিদ্রদের মধ্যেই বন্টন করে দেওয়া হবে।

গিয়াস উদ্দিনের বাবা উজিরপুর থানা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ছিলেন। বাবার পথ ধরেই তিনি রাজনীতিতে আসেন। ১৯৯৭ সালে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নির্বাচিত হন। বর্তমানে তিনি উপজেলা যুবলীগের সভাপতি।

২০১৩ সালে উজিরপুর পৌরসভা প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকে গিয়াস উদ্দিন ৬ হাজার ৩০১ ভোট পেয়ে মেয়র নির্বাচিত হয়। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মো. শহীদুল ইসলাম খান পান ২ হাজার ৩৬০ ভোট।

চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারি পৌরসভার প্রথম মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন গিয়াস উদ্দিন।

বাংলাদেশ সময়: ০৮২৫ ঘণ্টা, মার্চ ১৩, ২০১৬
এসআর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa