bangla news

বিএনপির স্থায়ী কমিটি থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৮-০২ ৪:০৭:২৩ পিএম

বিএনপির স্থায়ী কমিটি থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। সোমবার রাতে তিনি স্থায়ী কমিটি থেকে অব্যাহতি চেয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কাছে চিঠি দিয়েছেন বলে একটি সূত্রে জানা গেছে। 

ঢাকা: বিএনপির স্থায়ী কমিটি থেকে অব্যাহতি চেয়েছেন গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। সোমবার রাতে তিনি স্থায়ী কমিটি থেকে অব্যাহতি চেয়ে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার কাছে চিঠি দিয়েছেন বলে একটি সূত্রে জানা গেছে।  

সূত্র জানায়, ঢাকা জেলা বিএনপির কমিটি নিয়ে ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ হিসেবেই তিনি দলের চেয়ারপারসনের কাছে এই অব্যাহতি পত্র পাঠান।

চিঠিটি নয়াপল্টন অফিস থেকে রাত ৯টা ১০ মিনিটে নয়া পল্টন অফিসের অফিস সহকারী শামিম গুলশান অফিসে খালেদা জিয়ার কাছে পৌঁছান। চিঠি পেয়ে খালেদা জিয়া গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন বলে জানা গেছে।

তবে বিএনপির গুলশান অফিস সূত্রে জানা গেছে, অভিমান করে বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বেগম জিয়ার কাছে যে অব্যাহতিপত্র পাঠিয়েছিলেন তা তিনি প্রত্যাহার করেছেন।

এ ব্যাপারে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় রাত পৌনে বারোটায় বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘বিষয়টি সম্পূর্ণ গুজব। এমন কী হয়েছে যে দীর্ঘদিন ধরে যে দলটির সঙ্গে আছি তা থেকে হঠাৎ করে অব্যাহতি চাইব।’
এরপর এ বিষয়ে তিনি আর কোনো কথা বলতে রাজি হননি।

এদিকে গুলশান অফিসের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে বলেন, ‘গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ঢাকা জেলা কমিটি নিয়ে ক্ষুব্ধ থাকলেও তিনি এই কারণে অব্যাহতি চাইবেন এটা ঠিক নয়। এটি একটি গুজব।’

অন্যদিকে বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে বিএনপির একাধিক জ্যেষ্ঠ নেতার সঙ্গে যোগাযোগ করেও বিষয়টির সত্যতা পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ্য, ৩১ জুলাই বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির বৈঠকে চাঁদপুর জেলা বিএনপির সভাপতি বক্তব্য রাখতে গিয়ে বিএনপির কয়েকজন জ্যেষ্ঠ নেতার পক্ষপাতিত্ব এবং দুর্নীতির কথা বলেন। এ সময় তিনি গয়েশ্বর চন্দ্রের নামও উচ্চারণ করেন। এই ঘটনার কারণেও গয়েশ্বর চন্দ্র রায় ক্ষুব্ধ ছিলেন বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৩০ ঘণ্টা, জুলাই ০৩, ২০১০





        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-08-02 16:07:23