ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৬ আগস্ট ২০২০, ১৫ জিলহজ ১৪৪১

রাজনীতি

দুই মামলায় মীর্জা আব্বাসের ৮দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

আদালত প্রতিবেদক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৮-০২ ০৪:২৯:২৮ এএম
দুই মামলায় মীর্জা আব্বাসের ৮দিনের রিমান্ড মঞ্জুর

ঢাকা: পুলিশের কর্তব্য কাজে বাধা, গাড়িতে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের অভিযোগে দায়ের করা দুটি মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মীর্জা আব্বাসের ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোস্তফা শাহরিয়ার খান  সোমবার এ আদেশ দেন।



মতিঝিল ও পল্টন থানার দায়ের করা পৃথক দুটি মামলায় আদালত ৪ দিন করে মোট ৮ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করে আদালত।

মীর্জা আব্বাসকে কোর্ট হাজতে আনা হলেও অসুস্থ থাকায় তাকে আদালতে নেওয়া হয়নি। তার অনুপস্থিতিতেই এ রিমান্ড শুনানী হয়।

এদিকে রিমান্ড মঞ্জুর হবার পর মীর্জা আব্বাসের আইনজীবীরা আদালতে হৈচৈ শুরু করেন। এতে বিচারক দ্রুত এজলাস ত্যাগ করেন। বিচারক নেমে যাবার সময় আব্বাসের এক আইনজীবী আদালতকে ল্য করে খালি পানির বোতল ছুঁড়ে মারেন।

সরকার পরে আইনজীবী অতিরিক্ত পাবলিক প্রসিকিউটর শাহ আলম তালুকদার বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.  কম.বিডিকে বোতল ছুঁড়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

গত ২৮ জুলাই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পল্টন থানার উপপরিদর্শক (এসআই) জিল্লুর রহমান ও মতিঝিল থানার উপপরিদর্শক (এসআই) সমীর চন্দ্র সুত্রধর আলাদা আলাদাভাবে ৭ দিন করে ১৪ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেছিলেন।

পল্টন থানার মামলার এজাহার হতে জানা যায়, ২৭ জুন রাত পৌনে আটটায় হরতালের সমর্থনে বিএনপির একটি মিছিল থেকে বিজয়নগর মোড়ে একটি প্রাইভেট কার ল্য করে কাগজে মোড়ানো বিষ্ফোরক নিপে করা হয়। এতে গাড়িটিতে আগুন ধরে যায়।

এঘটনায় গাড়ির মালিক মো. আবু ইউসুফ পল্টন থানায় মামলা করেন।

পুলিশের দাবি, মীর্জা আব্বাস হরতালে পিকেটারদের রিকসা গাড়ি ভাঙচুর ও অগ্নিসংযোগের জন্য মোটা অংকের টাকা পুরস্কার ঘোষণা করেন। তারই আদেশে গাড়ি ভাঙচুর ও গাড়ি পোড়ানোর ঘটনা ঘটে।

মতিঝিল থানার এজাহার হতে জানা যায়, ২৭ জুন বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে বিএনপি জামায়াত সমর্থিত নেতাকর্মীদের মিছিল থেকে র‌্যাব ও পুলিশের দিকে কয়েকটি ককটেল বিস্ফোরন ঘটানো হয়। এতে পুলিশ সদস্যসহ কয়েক র‌্যাব সদস্য আহত হন।
এ ঘটনায় ২৭ জুন মতিঝিল থানার উপপরিদর্শক মোক্তার হোসেন মতিঝিল থানায় আরো একটি মামলা করেন।

মীর্জা আব্বাসের আইনজীবী জসিম উদ্দিন বেলাল বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম.বিডিকে জানান, হরতালের ঘটনায় মীর্জা আব্বাসের নামে বিভিন্ন থানায় ৪ টি মামলা হয়েছে। পল্টন থানার একটি মামলায় তিনি জামিনে আছেন।
২৭ জুন হরতালের দিন বেলা সাড়ে ১১ টায় তিনি গ্রেপ্তার হন।

বাংলাদেশ সময়: ১৬০৭ ঘণ্টা, আগস্ট ০২, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa