bangla news

খালেদা জিয়া কেন নাকে খত দেবেন: নজরুল ইসলাম

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৮-০১ ৫:৪৯:৫১ পিএম

বিচারাধীন মামলায় অপরাধ প্রমাণিত হওয়ার আগে ‘নাকে খত’ দেওয়ার মতো কথা বলা ঠিক নয়- মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

ঢাকা: বিচারাধীন মামলায় অপরাধ প্রমাণিত হওয়ার আগে ‘নাকে খত’ দেওয়ার মতো কথা বলা ঠিক নয়- মন্তব্য করেছেন বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান।

‘বিরোধী দলের নেতা খালেদা জিয়ার উচিত নাকে খত দেওয়া’- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এমন বক্তব্যের একদিন পর সোমবার এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন।

নজরুল ইসলাম বলেন, ‘বর্তমান প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের নেতাদের বিরুদ্ধে ওয়ান ইলেভেনের সময় দায়ের হওয়া সব মামলা প্রত্যাহার হয়েছে। কিন্তু  খালেদা জিয়া এবং আমাদের দলের নেতাকর্মীদের কোনো মামলাই প্রত্যাহার করা হয়নি। এসব মামলায় এখন পর্যন্ত খালেদা জিয়া অপরাধী প্রমাণিত হননি। সুতরাং তাকে কেন নাকে খত দিতে হবে?’
 
জাতীয় প্রেসকাবে ‘শিক্ষা ক্ষেত্রে দ্রব্যমূল্যের প্রভাব’ শীর্ষক এ আলোচনা সভার আয়োজন করে শিক্ষক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ।

পোশাক কারখানায় অস্থিতিশীল পরিস্থিতির জন্য সরকারকে দায়ী করে নজুরুল ইসলাম বলেন, ‘সরকার দলের মধ্য থেকেই কেউ কেউ অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করে বিরোধী দলের ওপর দায় চাপাতে চায়।’

‘গার্মেন্টস শ্রমিকরা নয়, অন্য কোনো শক্তি বহিরাগতদের দিয়ে গার্মেন্টস খাতকে ধ্বংস করতে চায় যাতে বিশ্ববাজারে বাংলাদেশের অর্থনীতি দুর্বল হয়ে পড়ে’, বলেন তিনি।

‘আন্দোলনের ক্ষেত্র প্রস্তুত করুন’ খালেদা জিয়ার নাম দিয়ে কিছু সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের সমালোচনা করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘সরকার কিছু সাংবাদিকদের দিয়ে এধরনের অসত্য সংবাদ পরিবেশন করিয়ে পাল্টা বক্তব্যের ক্ষেত্র তৈরি করছে। পুরো জিনিসটাই একটি ম্যাকানিজোম।’    

দেশে বহুমাত্রিকর সংকট চলছে মন্তব্য করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘বর্তমান সরকার দেশকে ব্যর্থ ও অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে সব ব্যবস্থা পাকা করে ফেলেছে।’

অধ্যক্ষ মো. সেলিম ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিরোধী দলের চিফ হুইপ জয়নাল আবদীন ফারুক, যুবদলের সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক চাষী নজরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুস সালাম, রহুল আমীন গাজী প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৪২৫ ঘণ্টা, আগস্ট ০২, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-08-01 17:49:51