bangla news

শিক্ষাখাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি মেননের

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৫-২৩ ১০:৪২:২৭ এএম

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বক্তব্যের সমালোচনা করে শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্য বাজেটে শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

ঢাকা: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিতের বক্তব্যের সমালোচনা করে শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্য বাজেটে শিক্ষা খাতে বরাদ্দ বৃদ্ধির দাবি জানিয়েছেন শিক্ষা মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেনন।

সোমবার সিরডাপ মিলনায়তনে বাংলাদেশ উন্নয়ন পরিষদ (বিইউপি) আয়োজিত ‘ষষ্ঠ পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনা: শিক্ষা অধ্যায়’ শীর্ষক এক আলোচনা সভায় তিনি এ আহবান জানান।

অর্থমন্ত্রী গতকাল এক আলোচনা সভায় বাজেটে শিক্ষা ও যোগাযোগ খাতের অগুরুত্বপূর্ণ প্রকল্পগুলোকে বাদ দিয়ে সংকুচিত বাজেট প্রণয়নের পরিকল্পনার কথা জানান।

অর্থমন্ত্রীর এ বক্তব্যের সমালোচনা করে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আমলেই আগের চেয়ে শিক্ষার মান ও শিক্ষাব্যবস্থার অনেক পরিবর্তন হয়েছে। বর্তমান মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর এই প্রথম মাধ্যমিক ও মাদ্রাসায় শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামুল্যে বই বিতরন করাসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। হঠাৎ করে শিক্ষা বরাদ্দ কমিয়ে দিলে শিক্ষার মান নেমে যাবে।

তিনি আরো বলেন, ‘শিক্ষাক্ষেত্রে মৌলিক পরিবর্তন করতে হলে শিক্ষা বাজেট সংকোচনের পরির্বতে বিকেন্দ্রীকরণের মাধ্যমে শিক্ষা খাতকে ঢেলে সাজানো প্রয়োজন। পাশাপাশি শিক্ষকদের জন্য স্বত্যন্ত্র পে কমিশনও গঠন করা প্রয়োজন।’

সাবেক বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের চেয়ারম্যান অধ্যাপক নজরুল ইসলাম বলেন, ‘প্রাথমিক শিক্ষা ভাল না হলে উচ্চশিক্ষা ভাল হবে না। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে মান সম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করতে শিক্ষার পরিবেশ ফিরিয়ে আনা, সেশনজট কমানোসহ কার্যকরি বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন। বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকেও আইনের আওতায় এনে কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণ করা প্রয়োজন।’

জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন কমিটির সদস্য সচিব শেখ ইকরামুল কবির বলেন, ‘মানসম্পন্ন শিক্ষক নিয়োগের জন্য এনটিসিআর এর পরিবর্তে আলাদা শিক্ষক নিয়োগ কমিশন গঠন ও উপযুক্ত প্রশিক্ষণ দেওয়া প্রয়োজন। এজন্য শিক্ষা প্রশাসনকে ঢেলে সাজাতে হবে এবং শিক্ষকদের জন্য আলাদা বেতন স্কেল গঠন করা প্রয়োজন।

বক্তারা আরো বলেন, ‘বর্তমান সরকারের আমলে একটি যুগোপযোগী শিক্ষানীতি প্রণয়ন করা হয়েছে। এখন প্রয়োজন শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্য বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ। এজন্য জাতীয় বাজেটে বরাদ্দ ১৪ থেকে বাড়িয়ে ২০ শতাংশ করা প্রয়োজন। এ সরকারের আমলেই শিক্ষকদের জন্য আলাদা বেতন স্কেল, আলাদা নিয়োগ কমিশন গঠনসহ শিক্ষার মানোন্নয়নের জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করা প্রয়োজন।’

সংগঠনের সভাপতি এমএ জলিলের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন, সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, সাবেক শিক্ষা সচিব সৈয়দ আতাউর রহমান, নায়েমের পরিচালক প্রফেসর শামসুর রহমান, জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ কাজী ফারুক আহমেদ, সংবাদ এর সহকারী সম্পাদক অধ্যাপক হারাধন গাঙ্গুলি প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০৩৫ ঘণ্টা, ২৩ মে ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2011-05-23 10:42:27