bangla news

এরশাদকে সম্মানজনক পদ দিতে শিগগির আলোচনায় বসবেন প্রধানমন্ত্রী: হানিফ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৩-২০ ২:৪৯:৩২ এএম
ছবি: কাশেম হারুন

ছবি: কাশেম হারুন

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে খুব শিগগির একটি সম্মানজনক পদ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মহাজোটের প্রধান শরিক আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ।

ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদকে খুব শিগগির একটি সম্মানজনক পদ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মহাজোটের প্রধান শরিক আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ।

রাজধানীর বারিধারায় বাসভবন প্রেসিডেন্ট পার্কে এরশাদের ৮১তম জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে রোববার পৌনে ১১টায় শুভেচ্ছা জানানো শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা জানান। অনুষ্ঠানের আয়োজন করে পল্লীবন্ধু ফাউন্ডেশন।

হানিফ বলেন, ‘তাকে একটি সম্মানজনক পদ দেওয়ার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে শিগগিরই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার সঙ্গে বসবেন। দ্রুতই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’
 
তৃণমূল পর্যায়ে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীদের মহাজোটের প্রতি ক্ষোভ রয়েছে এ কথার পরিপ্রেক্ষিতে তিনি বলেন, ‘মহাজোটের সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার রয়েছে। এ সম্পর্ক ধরে রাখতে আমরা সচেষ্ট। এ লক্ষ্যে সব ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।’

বিষয়টি নিয়ে শিগগিরই জাতীয় পার্টির সঙ্গে তারা বসবেন বলেও জানান তিনি।

সাংবাদিকদের তিনি জানান, তিনি আওয়ামী লীগ এবং প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এরশাদকে তার ৮১তম জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানাতে এসেছেন।

এসময় এরশাদের দীর্ঘায়ু কামনা করে তিনি বলেন, ‘ দীর্ঘ দিনের অভিজ্ঞতা দিয়ে তিনি দেশ ও জাতির সেবা করুন এটা সবার প্রত্যাশা।’

উল্লেখ্য, মহাজোটের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ সরকার গঠনের পর রাষ্ট্রপতির পদ পাওয়ার ইচ্ছা পোষণ করেছিলেন। কিন্তু মহাজোট সরকারের আড়াই বছর অতিক্রান্ত হওয়ার পরও সরকারে তিনি কোনো পদ পাননি। এ নিয়ে এরশাদ আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আকার-ইঙ্গিতে অনেকবারই বিষোদ্গার করেছেন।

বাংলাদেশ সময়: ১২১৫ ঘণ্টা, মার্চ ২০, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-03-20 02:49:32