bangla news

গত ৭ দিনে মান্নান ভূঁইয়ার আশানুরূপ উন্নতি হয়নি: ডা. নাজিম

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-০৭-১২ ৫:১৪:৩৮ পিএম

স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপির সাবেক মহাসচিব আব্দুল মান্নান ভূঁইয়ার অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। যদিও তার চিকিৎসকরা আশানুরূপ উন্নতির প্রত্যাশা করেছিলেন।

ঢাকা: স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপির সাবেক মহাসচিব আব্দুল মান্নান ভূঁইয়ার অবস্থা অপরিবর্তিত রয়েছে। যদিও তার চিকিৎসকরা আশানুরূপ উন্নতির প্রত্যাশা করেছিলেন।

স্কয়ার হাসপাতালের ইনটেন্সিভ কেয়ার ইউনিটের (আইসিইউ)-এর প্রধান ডা. মির্জা নাজিমউদ্দিন  মঙ্গলবার দুপুরে সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘আমারা আশা করেছিলাম এক সপ্তাহের মধ্যে ওনার স্বাস্থ্যের আশানুরূপ উন্নতি হবে। কিন্তু গত ৭ দিনে উনার অবস্থার আশানুরূপ উন্নতি হয়নি। অপরিবর্তিত রয়েছে। তবে তা স্থিতিশীল।’

ডা. মির্জা আরও বলেন, ‘আমাদের ধারণা ছিল এখানে ভর্তির পর ওনার ফুসফুসের প্রদাহ কিছুটা কমবে। কিন্তু ওনার কেমিকেল নিউমোনাইটিজ ও অ্যাটিপিক্যাল নিউমোনিয়া থাকায় তা কমছে না। এ কারণেই অক্সিজেন দিয়ে রাখতে হয়েছে।’

দু’টি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে মান্নান ভূইয়াকে স্কয়ার হাসপাতাল থেকে অন্যত্র স্থানান্তর করা হচ্ছে বলে যে সংবাদ প্রচারিত হচ্ছে, তা নাকচ করে দেন ডা. মির্জা নাজিমুদ্দিন।

শারীরিক অবস্থা ভালো না থাকায় মান্নান ভূঁইয়াকে ক্যান্সারের চিকিৎসা দেওয়া যাচ্ছে না বলেও জানান তিনি।

এক প্রশ্নের জবাবে আব্দুল মান্নান ভূঁইয়ার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. বজলুল গনি ভূঁইয়া বলেন, ‘চেতনা থাকাবস্থায় মান্নান ভূঁইয়া সিঙ্গাপুরের চিকিৎসকদের কাছে জানতে চেয়েছিলেন ওনাকে যে ধরনের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে তা বাংলাদেশে সম্ভব কি-না? চিকিৎসকদের ইতিবাচক সাড়া পেয়েই তিনি বাংলাদেশে ফেরার সিদ্ধান্ত নেন।’

গত ৭ জুলাই রাত পৌনে ৮টার দিকে সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতাল থেকে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় এনে মান্নান ভূঁইয়াকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে না পারায় গত সোমবার থেকে তাকে লাইফ সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়েছে।

গত ৩১ মে ফুসফুসে চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান মান্নান ভূঁইয়া। সেখানে তিনি সিঙ্গাপুর ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের করোনারি ইউনিটে (সিসিইউ)  চিকিৎসাধীন ছিলেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, ফুসফুসের ক্যান্সারে আক্রান্ত মান্নান ভূঁইয়াকে এ পর্যন্ত আটটি কেমোথেরাপি দেওয়া হয়েছে।

সর্বশেষ কেমোথেরাপি দেওয়ার পর তিনি স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে পারছিলেন না।

ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ টো হ্যাং চেং ও সার্জন টি অ্যাগেস্টাইনের তত্ত্বাবধানে গত জানুয়ারি মাস থেকে তার চিকিৎসা চলছিল। চিকিৎসার জন্য তিনি দুই দফা সিঙ্গাপুর যান।

চারদলীয় জোট সরকারের প্রভাবশালী মন্ত্রী আব্দুল মান্নান ভূঁইয়া ১৯৯৬ থেকে ২০০৭ পর্যন্ত টানা ১১ বছর বিএনপির মহাসচিব ছিলেন।

২০০৭ সালে জরুরি অবস্থা জারির পর বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া গ্রেপ্তার হওয়ার আগমুহূর্তে তাকে দল থেকে বহিষ্কার করেন। এরপর ২০০৮ সালের সংসদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করেন তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৮ ঘণ্টা, ১৩ জুলাই ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-07-12 17:14:38