bangla news

পৌর নির্বাচনে জোট হলেও দলীয় প্রার্থীদের বসাতে পারেনি আ.লীগ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০১-০৭ ১০:৫২:৩৫ এএম

আসন্ন পৌর নির্বাচনে অধিকাংশ পৌরসভায় মহাজোটগতভাবে একক মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন দিলেও বেশ কিছু স্থানে দলীয় প্রার্থীদের বসাতে পারেনি আওয়ামী লীগ।

ঢাকা: আসন্ন পৌর নির্বাচনে অধিকাংশ পৌরসভায় মহাজোটগতভাবে একক মেয়র প্রার্থী মনোনয়ন দিলেও বেশ কিছু স্থানে দলীয় প্রার্থীদের বসাতে পারেনি আওয়ামী লীগ।

মহাজোটগতভাবে নির্বাচনের অংশ হিসেবে ১৯ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে জোটের অন্যতম শরিক জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে সমর্থন দেওয়া হয়। এই ১৯ পৌরসভার প্রতিটিতেই আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা তাদের প্রার্থিতা বহাল রেখেছেন বলে অভিযোগ করেছে জাতীয় পার্টি।

তবে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, ১৮টি পৌরসভায় জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে মহাজোটের প্রার্থী হিসেবে সমর্থন দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ৭/৮টি পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে বসানো সম্ভব হয়নি।
 
এদিকে মহাজোটের শরিকদের মধ্যে আরো দুই দল ওয়ার্কার্স পার্টি ও জাসদ বেশ কিছু পৌরসভায় নিজ নিজ প্রার্থী দিয়ে নির্বাচন করছে। যদিও দুই পৌরসভায় জাসদের প্রার্থীকে আওয়ামী লীগ সমর্থন দিয়েছে।

জাসদের সর্ব শেষ দাবি ছিলো মোট ৪টি। কিন্তু দুইটি ছেড়ে দেয়ার পরও আরো ৬টি পৌরসভায় জাসদের প্রার্থীরা এককভাবে নির্বাচন করছেন।

অপর দিকে ওয়ার্কার্স পার্টিকে কোনো পৌরসভায় ছাড় না দেওয়ায় ৭টি পৌরসভায় তাদের দলের প্রার্থীরা এককভাবেই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

যে সব পৌরসভায় ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থীরা নির্বাচন করছেন সেগুলো হলো- যশোর, রাজবাড়ি, দিনাজপুর, গাইবান্ধা, গোবিন্দগঞ্জ, বরিশালের বানারীপাড়া ও রাজশাহীর আরানী।

আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে যে দুই আসনে জাসদকে ছাড় দেওয়া হয়েছে সেগুলো হলো- বগুড়ার নন্দিগ্রাম ও চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা।

এর বাইরে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, গাইবান্ধা, কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা, সিরাজগঞ্জের বেলকুচি, শেরপুর ও লালপুরের ৬ পৌরসভায় জাসদের প্রার্থী রয়েছে।

এ প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার বাংলানিউজকে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ১৯টি পৌরসভায় আমাদের প্রার্থীকে সমর্থন দিয়েছে। কিন্তু প্রতিটিতেই এখনো তাদের দলের প্রার্থী রয়ে গেছে। ভোট গ্রহণেরও বেশি দেরি নেই।’

তিনি বলেন, ‘বিষয়টি নিয়ে আমরা আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহসহ একাধিক নেতার সঙ্গে বার বার কথা বলেছি। তারা বলেছেন-দেখবেন।’

এ সব বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমরা মহাজোটের একক প্রার্থী সমর্থন ঠিক রাখার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। জাতীয় পার্টিকে ১৮টি পৌরসভা ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। ৭/৮টিতে আমাদের দলের প্রার্থী রয়ে গেছে।’

তিনি বলেন, ‘আমাদের দলের প্রার্থীরা আগেই মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। তারা বিভিন্ন কৌশলে থেকে যাচ্ছে। আমরা চেষ্টা করছি সবাইকে বসিয়ে দিতে।’

তিনি আরো বলেন, ‘তাছাড়া কোনো কোনো জায়গায় আমাদের কাছে নাম জমা পড়া জাতীয় পার্টি প্রার্থীদের মনোনয়ন বাতিল হলে তাদের পরিবর্তে অন্যরা প্রার্থী হয়েছেন। যার ফলে আমাদের লোকজন সেটা মানতে চাচ্ছে না। এতেও কিছুটা সমস্যা হচ্ছে।’

ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আনিসুর রহমান মল্লিক বাংলানিউজকে বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমাদের সঙ্গে আওয়ামী লীগ কোনো যোগাযোগ করেনি। আমরাও আগ্রহ দেখাইনি। আমাদের দল থেকে ৭টি পৌরসভায় এককভাবেই  মেয়র প্রার্থী রয়েছেন।’

জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরিফ নুরুল আম্বিয়া বাংলানিউজকে বলেন, ‘মহাজোটগতভাবে সমঝোতা হয়নি। ২১ পৌরসভায় আমাদের দল থেকে মেয়র প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন।  কিন্তু আওয়ামী লীগ আমাদের মাত্র দু’টি পৌরসভা ছেড়ে দিয়েছে। ’

বাংলাদেশ সময়: ২০৫০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৭, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2011-01-07 10:52:35