bangla news

সরকারের দিন বদলের চিত্রে ওবায়দুলের আক্ষেপ

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১২-২৮ ৬:৪৮:২৫ এএম

মহাজোট সরকারের দুই বছরের দিন বদলের চিত্রে পরোক্ষভাবে হতাশাই ব্যক্ত করলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ওবায়দুল কাদের।

ঢাকা: মহাজোট সরকারের দুই বছরের দিন বদলের চিত্রে পরোক্ষভাবে হতাশাই ব্যক্ত করলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ওবায়দুল কাদের।

তিনি বললেন, ‘অফিসে অফিসে প্রসাধনীর মতো কম্পিউটার সাজিয়ে রাখলেই দিন বদল হবে না। যারা দিন বদলেন কথা বলে মুখে ফেনা তুলছেন তাদের মন মানসিকতা এখনও বদলায়নি।’

মঙ্গলবার দুপুরে সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে এক প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

ওয়াবদুল কাদের অনেকটা আক্ষেপ প্রকাশ করে বলেন, ‘অধিকাংশ মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটে কোন কাজের আপডেট থাকে না। শুধুমাত্র মন্ত্রীর শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের ছবি দিয়ে ওয়েব সাইট সাজানো আছে। এভাবে দিন বদল হয় না।’

আওয়ামী লীগের এই নেতা তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিরও সভাপতি।  

সংসদীয় কমিটির কার্যক্রম সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘কমিটিগুলো সরকারের গঠনমূলক সমালোচনা করে মন্ত্রণালয়গুলোকে তটস্থ রেখেছে। এত কাজের গতি ও মান কিছুটা হলেও বেড়েছে। তবে প্রশাসনিক কাজের এখনও এনালগ পদ্ধতিতে চলছে। বিরোধীদল অনুপস্থিত থেকে সংসদকে অকার্যকর করলেও তারা সংসদীয় কমিটির বৈঠকে নিয়মিত উপস্থিত থেকে কমিটির কার্যক্রমকে গতিশীল করেছে।’

এর আগে তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির আজকের ২২তম বৈঠকের আলোচ্য বিষয় প্রসঙ্গে কাদের বলেন, ‘কমিটি আজ প্রেস ইন্সটিটিউট অব বাংলাদেশ (পিআইবি) নিয়ে আলোচনা করেছে। কমিটির কাছে মনে হয়েছে পিআইবি একটি দ্বৈত ব্যবস্থার মধ্যে চলছে। একদিকে তাদের নিজস্ব কাঠামো অন্যদিকে মন্ত্রণালয়। নির্দিষ্ট আইনি কাঠমোর ভেতর না থাকার ফলে এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে কমিটি মনে করে। কমিটি পিআইবি’র জন্য আলাদা একটি আইন করার জন্য সুপারিশ করেছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘পিআইবি’র মহাপরিচালক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস একটি প্রতিবেদনের মাধ্যমে কমিটিকে জানিয়েছেন যে তিনি গত সাত মাস ধরে বেতন পাচ্ছেন না। আমরা বিষয়টির দ্রুত সমাধানের জন্য মন্ত্রণালয়কে বলেছি। এছাড়া পিআইবিতে ২০টি গুরুত্বপূর্ণ পদ শূন্য আছে। এসব শূন্য পদগুলোতে নিয়োগের জন্য কমিটি সুপারিশ করেছে। ওই প্রতিবেদনে পিআইবিতে স্নাতকোত্তর কোর্স চালুর জন্য ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলা হয়েছে।’

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কমিটি তাদেরকে (পিআইবি) বলেছে বর্তমানে যেসব বিষয় নিয়ে প্রশিক্ষণ চালু আছে সেগুলোকে তৃণমূল পর্যায়ে নেওয়ার ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে প্রান্তিক পর্যায়েও সাংবাদিকতার মান উন্নত হয়।’

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, বৈঠকে দ্রুত ‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা’ প্রণয়নের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সুপারিশ করা হয়।

ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে বৈঠকে তথ্যমন্ত্রী আবুল কালাম আজাদ, জয়নুল আবদিন ফারুক, শাহিন মনোয়ারা হক, সারাহ্ বেগম কবরী, সুকুমার রঞ্জন ঘোষ, বিএম মোজাম্মেল হক , মো. শাহ্রিয়ার আলম, তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব হেদায়েতুলাহ আল মামুন ও পিআইবি মহাপরিচালক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাসসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৫ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ২৮, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-12-28 06:48:25