ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২ শ্রাবণ ১৪৩১, ১৮ জুলাই ২০২৪, ১১ মহররম ১৪৪৬

রাজনীতি

দৃষ্টি সরাতে সরকার বিভিন্ন ইস্যু তৈরি করছে: রিজভী

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৭ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
দৃষ্টি সরাতে সরকার বিভিন্ন ইস্যু তৈরি করছে: রিজভী

ঢাকা: দেশবিরোধী চুক্তি থেকে জনগণের দৃষ্টি সরাতেই সরকার পরিকল্পিতভাবে বিভিন্ন ইস্যু তৈরি করছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার (১০ জুলাই) বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

রিজভী বলেন, ভারতের সঙ্গে রেল করিডোর-সমঝোতা বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের জন্য হুমকি। ট্রেনে করে সামরিক সরঞ্জাম বহন করবে ভারত সরকার। পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলোকে মোকাবিলা করতে ভারত বাংলাদেশকে ব্যবহার করবে তারা।  

তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশ তাদের রাজনৈতিক সংকট মোকাবিলা করার জন্য বাংলাদেশের জমিনকে ব্যবহার করতে চাচ্ছে।  বাংলাদেশকে একটি চিরস্থায়ী আন্তর্জাতিক চক্রান্তে ফেলে দেওয়ার প্রচেষ্টা তারা হাতে নিয়েছে। এ কারণে আমরা দেখতে পাচ্ছি সরকার জনগণের দৃষ্টি অন্যদিকে সরিয়ে দিচ্ছে, নিজেদের অপকর্ম ঢাকার জন্য, দেশবিরোধী চুক্তি করার জন্য। তাই কখনো আমরা দেখছি আজিজকাণ্ড, কখনো দেখছি বেনজীরকাণ্ড, কখনো দেখছি পিএসসির ড্রাইভারকাণ্ড, কখনো দেখছি মতিউরকাণ্ড- একের পর এক কাণ্ড আমরা দেখতে পাচ্ছি।

প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশে রিজভী বলেন, বেনজীর-আজিজসহ অন্যান্য উচ্চ পর্যায়ের কর্মকর্তারা যে হাজার হাজার কোটি টাকা দুর্নীতি করেছেন, সেগুলো আপনি দেখেন না? একজন পিয়ন কী করে ৬০ কোটি টাকার মালিক হন? একজন ড্রাইভার যদি ১০০ কোটি টাকার মালিক হন সেটা কি আপনার সরকার জানবে না?

তিনি বলেন, সরকার বিএনপি চেয়ারপারসনকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেওয়ার নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করছে। খালেদা জিয়া কখনো কোনো স্বৈরাচারের কাছে আপস করেননি। তার জনপ্রিয়তাই একজনের হিংসার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।  

মৎস্যজীবী দলের সদস্য সচিব আব্দুর রহিমের পরিচালনায় আয়োজিত দোয়া অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-অর্থনৈতিক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সহ সভাপতি জাহিদুল কবির, কেন্দ্রীয় ছাত্রদলের সহ-সভাপতি তৌহিদুর রহমান আউয়াল প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩৬ ঘণ্টা, জুলাই ১০, ২০২৪
টিএ/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।