ঢাকা, সোমবার, ১৯ শ্রাবণ ১৪২৭, ০৩ আগস্ট ২০২০, ১২ জিলহজ ১৪৪১

রাজনীতি

আ. লীগই যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করেছে: জামায়াত

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-২৩ ০৭:২১:০৫ পিএম
আ. লীগই যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করেছে: জামায়াত

ঢাকা: আওয়ামী লীগই যুদ্ধাপরাধীদের রক্ষা করেছে বলে অভিযোগ তুলেছে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী।

শনিবার বিকেলে পুরানা পল্টনস্থ ঢাকা মহানগর জামায়াত কার্যালয়ে আইনজীবীদের সঙ্গে মতবিনিময়ে জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল এটিএম আজহারুল ইসলাম এ অভিযোগ করেন।



সংবিধান সংশোধনের নামে বাংলাদেশকে ধর্মহীন রাষ্ট্রে পরিণত করার ষড়যন্ত্র, জামায়াতে শীর্ষ নেতাদের মুক্তি ও দেশ পরিচালনায় সরকারের ব্যর্থতা তুলে ধরতে কেন্দ্র ঘোষিত সপ্তাহব্যাপী গণসংযোগ কর্মসূচির অংশ হিসেবে ঢাকা মহানগর জামায়াত এ মতবিনিময় সভা আয়োজন করে।

এটিএম আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘১৯৭৩ সালে আওয়ামী লীগ সরকার দেশব্যাপী তদন্ত চালিয়ে ১৯৫ জনকে যুদ্ধাপরাধী হিসেবে চিহ্নিত করে। চিহ্নিত এসব যুদ্ধাপরাধীর সবাই ছিলো পাকিস্তানি সেনা। বিনা বিচারে ছেড়ে দিয়ে আওয়ামী লীগই তাদের রক্ষা করেছে। ’

তিনি বলেন, ‘কিসের বিনিময়ে, কাদের স্বার্থে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছিল জাতির কাছে সে জবাব একদিন দিতে হবে। ’

মীরপুর, পিরোজপুর, লক্ষীপুর ও শেরপুরে জামায়াত নেতাদের বিরুদ্ধে যারা মামলা করেছে তাদেরকে আসল রাজাকার আখ্যা দিয়ে এটিএম আজহারুল ইসলাম বলেন, ‘যারা আজ নিজেদের রক্ষার জন্য জামায়াত নেতাদের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করছে,  সময় হলে তাদের আসল পরিচয় জাতির সামনে তুলে ধরা হবে। ’

বন্দী নেতাদের নির্দোষ দাবি করে তিনি বলেন, ‘১৯৭১-এর পর আওয়ামী লীগ ক্ষমতায়  থাকাকালে ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭শ’ জনের বিরুদ্ধে যুদ্ধাপরাধের মামলা হয়েছিল। এদের মধ্যে বর্তমানে জেলে রাখা জামায়াতের কোনো নেতা ছিলেন না। ’

আজহারুল ইসলাম আরও বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে স্বৈরশাসক এরশাদবিরোধী আন্দোলন ও ‘৯১ থেকে ‘৯৬ পর্যন্ত বিএনপি বিরোধী আন্দোলনের সময় জামায়াতের গা দিয়ে আতরের গন্ধ বের হতো। আর ‘৯৮ সালে চারদলীয় জোট গড়ার পর জামায়াতের গা দিয়ে রাজাকারের গন্ধ বের হতে শুরু করে। ’

বাংলাদেশে সময়: ১৯০০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa