ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ শ্রাবণ ১৪২৭, ১৪ আগস্ট ২০২০, ২৩ জিলহজ ১৪৪১

রাজনীতি

৩৩ লাখ বিনিয়োগকারীর আহাজারিতে ঢাকার রাজপথ প্রকম্পিত: মির্জা ফখরুল

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৩, ২০১০
৩৩ লাখ বিনিয়োগকারীর আহাজারিতে ঢাকার রাজপথ প্রকম্পিত: মির্জা ফখরুল

ঢাকা: বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘৩৩ লাখ ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীর আহাজারিতে ঢাকার রাজপথ প্রকম্পিত হচ্ছে। এই সরকার ‘৯৬ সালের মত এবছরও পুঁজিবাজার সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দিয়েছে।

সাধারণ মানুষকে পথে বসিয়েছে। ’
 
শুক্রবার বিকেল ৪টায় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের র‌্যালি উদ্বোধন পূর্ব সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের ৭৫তম জন্মবার্ষিকী উপলে জাতীয়তাবাদী ছাত্রদল এ র‌্যালি আয়োজন করে।

র‌্যালিপূর্ব সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ছাত্রদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু। বক্তব্য রাখেন বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদীন ফারুক, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম খান আলীম প্রমুখ।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দেশ এখন মহাসংকটের সম্মুখীন। সীমান্তে গুলি করে প্রতিনিয়ত মানুষ হত্যা করছে ভারতের সীমান্ত রক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। ফেলানীকে হত্যা করে কাঁটাতারের সঙ্গে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে। কিন্তু নতজানু সরকার তার প্রতিবাদও করতে পারেনি। তারা দেশের স্বার্থ জলাঞ্জলি দিয়ে গোপন চুক্তি করেছে। দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব এখন হুমকির মুখে। ’
 
তিনি বলেন, ‘এ সরকার সর্বেেত্র ব্যর্থ হয়েছে। সে ব্যর্থতার বিরুদ্ধেই পৌর নির্বাচনে জনগণ রায় দেওয়া শুরু করেছে। পৌর নির্বাচনে প্রমাণিত হয়েছে যে, এ সরকার মতায়  গিয়ে জনগণের জন্য কিছুই করতে পারেনি। ’

ছাত্র-জনতার যৌথ আন্দোলনে এই ফ্যাসিবাদী সরকারের পতন ঘটবে বলে হুঁশিয়ার করে তিনি বলেন, জিয়াউর রহমান যেমন ‘৭১ এ মুক্তিযুদ্ধের ঘোষণা দিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলেন। তেমনি ‘৭৫ এর ৭ নভেম্বর দেশের দায়িত্ব নিয়ে জাতিকে রা করেছিলেন। ’

ফারুক বলেন, ‘সরকার সংসদকে অকার্যকর করে রেখেছে। তারা গণতন্ত্রকে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ দিতে পারেনি। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকীতে আমাদের শপথ নিতে হবে-আন্দোলন সংগ্রামের মাধ্যমে এই সরকারকে বিদায় করতে হবে। ’

পরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি নয়াপল্টন কার্যালয় থেকে শুরু হয়ে কাকরাইল মোড়, শান্তিনগর, মালিবাগ, মৌচাক হয়ে মগবাজারে গিয়ে শেষ হয়। র‌্যালিতে কয়েক হাজার ছাত্রদল নেতাকর্মী অংশ নেয়। র‌্যালির নেতৃত্বে ছিলেন- মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জয়নুল আবদিন ফারুক, সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, আমিরুল ইসলাম আলীম প্রমুখ।

র‌্যালিতে ছাত্রদল নেতা-কর্মীদের হাতে বিভিন্ন ধরনের ফেস্টুন, ব্যানার এবং  জিয়া, তারেক ও খালেদার পোস্টার দেখা গেছে। র‌্যালিতে বাদক দলের বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে র‌্যালিটি এগিয়ে পল্টন থেকে মগবাজার এলাকায় গিয়ে শেষ হয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৩০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২১, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa