ঢাকা, বুধবার, ৫ আষাঢ় ১৪৩১, ১৯ জুন ২০২৪, ১১ জিলহজ ১৪৪৫

রাজনীতি

প্রার্থীর অভিযোগ, কর্মীদের টিআর-কাবিখার ‘লোভ’ দেখাচ্ছেন এমপি

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২০১ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০২৪
প্রার্থীর অভিযোগ, কর্মীদের টিআর-কাবিখার ‘লোভ’ দেখাচ্ছেন এমপি

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর-সদর আংশিক) আসনের সংসদ সদস্য নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন রায়পুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে প্রভাব বিস্তার করছেন বলে অভিযোগ করেছেন চেয়ারম্যান প্রার্থী আলতাফ হোসেন হাওলাদার। রোববার (১৯ মে) রায়পুর পৌর শহরে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ অভিযোগ করেন।

আলতাফ হোসেন দাবি করেন, সংসদ সদস্য নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন আচরণবিধি লঙ্ঘন করে তার কর্মীদের টিআর-কাবিখার লোভ দেখাচ্ছেন। এছাড়া নির্বাচনী প্রচারণায় আওয়ামী লীগের নেতারা তাকে উদ্দেশ্য করে কটূক্তি ও উত্তেজনাপূর্ণ বক্তব্য রাখছেন। এতে নির্বাচনী মাঠের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।  

নির্বাচনী মাঠে এমপির প্রভাব বিস্তারের বিষয়টি সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন জানিয়ে তিনি বলেন, এতে কোনো প্রতিকার পাইনি। ফলে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে আমি সন্দিহান। এ বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নির্বাচন কমিশনসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ জানাই।

উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আলতাফ হোসেনের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হলেন বর্তমান চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আনারস প্রতীকের মামুনুর রশিদ। তিনি এমপি নয়নের আপন ভগ্নিপতি। নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর থেকে নয়ন তার ভগ্নিপতি মামুনুর রশিদের পক্ষে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কাজ করছেন বলে অভিযোগ করেন আলতাফ।  

সংবাদ সম্মেলনে আলতাফ হোসেন দাবি করেন, এমপি নয়ন নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন করে মোটরসাইকেল সমর্থকদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে হুমকি-ধমকি দিচ্ছেন। সুষ্ঠু নির্বাচন তিনি বাধাগ্রস্ত করছেন। মোটরসাইকেল প্রতীকের কর্মী-সমর্থকদের মামলা দেওয়ার ভয়ভীতি দেখাচ্ছেন।

তিনি আরও অভিযোগ করেন, আনারসের লোকজন মোটরসাইকেল কর্মীদের মারধরের হুমকি দিচ্ছে। ভোট কেন্দ্রে এজেন্ট প্রদানে প্রতিবন্ধকতা ও কেন্দ্র দখল করে জাল ভোট দেওয়ার পাঁয়তারা করছেন। সুষ্ঠু ভোটের কোন পরিবেশ নেই। প্রশাসন সুষ্ঠু ভোটের কথা বললেও এমপির প্রভাবে সুষ্ঠু ভোট অনুষ্ঠান নিয়ে আমরা সন্দিহান।  

আলতাফ হোসেনের চিফ এজেন্ট সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন খোকন বলেন, প্রশাসন নিরপেক্ষ ভূমিকায় আছে। কিন্তু নয়ন হুমকি দিচ্ছেন- ‘প্রশাসন এখন যা দেখাচ্ছে- তা রাতের মধ্যে বন্ধ হয়ে যাবে’। ওনার কথার বাইরে প্রশাসন যাবে না। নয়ন তার বাহিনী দিয়ে ভোট নিয়ে যাবেন। ভোট সুষ্ঠু হতে দেবেন না। আমাদের নেতা-কর্মীদের রাতের আধারে ধরে নিয়ে গিয়ে টিআর-কাবিখার প্রজেক্ট দেওয়া হচ্ছে। তিনি হুমকি দিচ্ছেন- যে ওনার কথা না শুনবে, তাকে মৃত্যুবরণ করতে হবে, না হয় দেশ ছাড়তে হবে।
 
তবে আলতাফ হোসেন ও তার অনুসারীদের অভিযোগ নাকচ করে রায়পুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও আনারস প্রতীকের কর্মী কাজী জামশেদ কবির বাক্কি বিল্লাহ বাংলানিউজকে বলেন, প্রথম থেকেই আচরণবিধি লঙ্ঘন করে উত্তেজনাকর বক্তব্য দেওয়া শুরু করেছেন মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থী ও তার লোকজন। তাই আমাদের দলের নেতা-কর্মীদের মনোবল উজ্জীবিত করার জন্য আমরাও কিছু কথা বলেছি। এগুলো মূলত রাজনৈতিক কৌশল।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সংসদ সদস্য নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন কোনো মন্তব্য করেননি। তিনি বলেন, নির্বাচনী বিষয়ে আমি কোনো কথা বলবো না। যা বলার ২১ তারিখের পর বলবো।  

প্রার্থীর অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে রিটার্নিং কর্মকর্তা ও অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট প্রিয়াংকা দত্ত বলেন, এসব বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাইনি।  

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপে আগামী ২১ মে লক্ষ্মীপুরের রায়পুরে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। এ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে দুইজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজন এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৭ ঘণ্টা, মে ১৯, ২০২৪
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।