bangla news

সরকারের দমন-পীড়ন তীব্রতর হয়ে উঠেছে: রিজভী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-২১ ৩:১৭:৫২ এএম

বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের উপর সরকারের দমন-পীড়ন তীব্রতর হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

ঢাকা: বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের উপর সরকারের দমন-পীড়ন তীব্রতর হয়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে নয়া পল্টনস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

অভিযোগে তিনি বলেন, ‘সারাদেশে বিএনপির মাসব্যাপী কর্মসূচি চলাকালে সরকার বিভিন্ন স্থানে ১৪৪ ধারা জারি করে বাধা সৃষ্টি করছে। এমনকি পুলিশ ও দলীয় ক্যাডারদের দিয়ে সভা-সমাবেশে হামলা, বিরোধীদলীয় নেতাকর্মীদের মারধর করছে। পরে আবার মিথ্যা মামলা দিয়ে গ্রেপ্তার ও হয়রানিও করছে।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগের এ সরকার এমন একটি অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাস্টিস্ট সরকার যে, তারা নিজেদের প্রভু মনে করে আর অন্যদের মনে করে দাস।’

বিএনপির এ নেতা প্রশ্ন রেখে বলেন, ‘গণতন্ত্রের শর্ত কি বিরোধীদলের উপর স্টিম রোলার চালানো?

তিনি বলেন, ‘তাদের চাঁদাবাজি এমনই বেড়েছে যে, যুবলীগনেতাকে চাঁদা না দেওয়ার ২২ দিন ধরে এক দোকানদার দোকান খুলতে পারছেন না। শেখ রাসেলের জন্মদিনের মিছিলে না যাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৭০ ছাত্রকে পিটিয়ে আহত করেছে তারা।’

রুহুল কবির বিরোধীদলের নেতাকর্মীদের উপর সরকারের হামলা, নির্যাতন, হত্যা, চাঁদাবাজিসহ সব অপকর্মের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান। একই সঙ্গে এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের জন্য জনগণকে এগিয়ে আসার আহ্বানও জানান তিনি।

বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব আরও বলেন, ‘সরকারি দলের মন্ত্রীরা নিজেরাই এখন খাদ্য সঙ্কট আর দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কথা বলতে শুরু করেছেন। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন তারা হাওয়া ভবন ও বিএনপির সিন্ডিকেটের লোকেরা নিত্যপণ্যের দাম বাড়িয়েছে বলে প্রচার করেছেন। তাহলে এখন কোন ভবনের কারণে এমন অস্বাভাবিক দাম বাড়ছে?’

সাংবাদিক সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপির সমাজসেবা বিষয়ক সম্পাদক আবুল খায়ের ভূঁইয়া এমপি, সহ-দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা শিরীন সুলতানা, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি হাবিব-উন-নবী খান সোহেল, ছাত্রদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৩০০ ঘন্টা, ২১ অক্টোবর, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2010-10-21 03:17:52