ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৩ শ্রাবণ ১৪২৬, ১৮ জুলাই ২০১৯
bangla news

গ্রেপ্তারের জন্য প্রস্তুত আছি: সাকা চৌধুরী

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-১৯ ১:৫২:৪২ পিএম

বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করা হতে পারে বলে জোর গুজব ছড়িয়ে পড়ে বন্দর নগরীতে।

চট্টগ্রাম: বিএনপি’র স্থায়ী কমিটির সদস্য সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে মঙ্গলবার রাতে গ্রেপ্তার করা হতে পারে বলে জোর গুজব ছড়িয়ে পড়ে বন্দর নগরীতে।

এ খবর ছড়িয়ে পড়লে কয়েকশ’ সমর্থক ও নেতাকর্মী তার গুডস হিল-এর বাসভবনের সামনে জড়ো হন। সেখানে নেতাকর্মীরা ‘সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর কিছু হলে জ্বলবে আগুন ঘরে ঘরে’ স্লোগান দেন।   

এ ব্যাপারে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বাংলানিউজকে বলেন, ‘আমাকে গ্রেপ্তার করলে দেশের নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে এমন নয় ।’

তিনি আরও জানান, অবৈধ এবং অগণতান্ত্রিক এ সরকার যেভাবে জুলুম-নির্যাতন শুরু করেছে তাতে এখনই দেশের মানুষের ঘুরে দাঁড়ানো দরকার।

গ্রেপ্তারের সম্ভাবনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমি তো যেতেই চাই, সেজন্য এত আয়োজনের তো দরকার নেই।’

গ্রেপ্তার হওয়ার জন্য প্রস্তুত আছেন জানিয়ে তিনি বলেন,  ‘আমি গ্রেপ্তার হলে চট্টগ্রামের মানুষ তা সহজভাবে নেবে না। কারণ তারা আমাকে ভালোবাসে। তবে আমি আশা করবো আমি গ্রেপ্তার হলে চট্টগ্রামে কোনো অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে না।’

এসময় নগর বিএনপির সেক্রেটারি ডা. শাহাদত হোসেন এবং জামায়াতের সাবেক সাংসদ শাহজাহান চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে গোয়েন্দা পুলিশের একটি সূত্র বাংলানিউজকে জানায়, রাতেই গ্রেপ্তার করা হতে পারে বিএনপি’র এই নেতাকে।

রাত সাড়ে ১১টা পর্যন্ত সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীর বাসভবনের সামনে পুলিশের উপস্থিতি লক্ষ্য করা না গেলেও গভীর রাত পর্যন্ত বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের ঘোরাঘুরি করতে দেখা গেছে।

তবে এ ব্যাপারে একটি গোয়েন্দা সংস্থার নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক দায়িত্বশীল একজন কর্মকর্তা রাত দেড়টার দিকে বাংলানিউজকে জানিয়েছেন সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরীকে গ্রেপ্তারের কোনো সম্ভাবনা নেই।

সংশ্লিষ্ট কোতয়ালি থানার ওসি সাখাওয়াত হোসেনও রাতে বাংলানিউজকে জানান, প্রশাসনের পক্ষ থেকে বিএনপির এই নেতাকে গ্রেপ্তারের কোনো নির্দেশনা তারা পাননি।

পরে গভীর রাতে নিজ বাসায় উপস্থিত সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী বলেন, ‘শেখ হাসিনাকে যে মহলটি জেল খাটিয়েছে, সেই মহল আবার তৎপর হয়ে উঠেছে।’

ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিষিদ্ধের ব্যাপারে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘দেশের প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি, আদালত একেক সময় একেক কথা বলেন। এই সরকার নানামুখী কথা বলে। দেশের জনগণ কি লটারি করে নির্ধারণ করবে কার কথা মানবে?’

বাংলাদেশ সময়: ০৩০০ ঘণ্টা, অক্টোবর ২০, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-10-19 13:52:42