bangla news

বিরোধী দলের কর্মসূচী মোকাবেলায় যুবলীগের কর্মসূচী ঘোষণা

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১০-১০-১৬ ১০:৩৪:১৫ এএম

যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রম বানচালের চেষ্টা ও খালেদা জিয়ার সেনানিবাসের বাড়ি নিয়ে বিরোধী দলের অপরাজনীতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।

ঢাকা: যুদ্ধাপরাধীদের বিচার কার্যক্রম বানচালের চেষ্টা ও খালেদা জিয়ার সেনানিবাসের বাড়ি নিয়ে বিরোধী দলের অপরাজনীতির প্রতিবাদে বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ।

একইসঙ্গে যতদিন যুদ্ধাপরাধের বিচার কার্যক্রম চলবে ততদিন বিভিন্ন কর্মসূচি দিয়ে বিরোধী দলের কর্মসূচির মোকাবেলা করার ঘোষণা দিয়েছেন দলের নেতারা।

শনিবার বিকেলে দলের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে ১৯ ও ২৫ অক্টোবর ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণের উদ্যেগে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভ সমাবেশ, ২৪ ও ২৮ অক্টোবর দেশের সকল জেলা ও উপজেলায় সমাবেশ  এবং ৩০ অক্টোবর মুক্তাঙ্গনে সমাবেশ।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় সংসদের হুইপ মির্জা আজম।

তিনি বলেন,  ‘সেনানিবাসের বাড়ি নিয়ে উচ্চ আদালতের রায়ে হেরে যাওয়ায় বিএনপি সিরাজগঞ্জে লাশের রাজনীতি করেছে। সরকার উৎখাতের হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। বিরোধী দলের এসব রাজনৈতিক কর্মসূচি আমরা রাজনৈতিকভাবেই মোকাবেলা করবো।’

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, ‘বিএনপির রাজনীতির কেন্দ্র হচ্ছে একটি বাড়ি ও খালেদা জিয়ার দুই ছেলে।’

এসময় তিনি বিরোধী দলের নেতাদের উদ্দেশ্যে বলেন, বাড়ির মালিকানা সংক্রান্ত মামলায় উচ্চ আদালতে হেরে যাওয়ার পর বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি করা ও রাজপথ উত্তপ্ত করা ঠিক হবে না।

এসময় তিনি জনগণকে নিয়ে বিএনপির অপরাজনীতি রুখে দেওয়ার আহ্বান জানান।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত স্থানীয় সরকার ও পল্লী উন্নয়ন প্রতিমন্ত্রী জাহাঙ্গির কবির নানক যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বানচাল প্রসঙ্গে বলেন, ‘এই বিচার থেকে সরে আসার কোনো উপায় নেই। দৃষ্টান্তমূলক বিচার না করা হলে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে না।’

আদালতের বাইরে খালেদা জিয়ার সেনানিবাসের বাড়ি নিয়ে আইনজীবী সমিতির সভাপতি খন্দকার মাহবুব হোসেনের দেওয়া বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘আদালতের রায়ে মীমাংসিত একটি বিষয় নিয়ে তারা আবার আদালতের বাইরে কি আলোচনা করতে চাচ্ছেন?’

অনুপ্রেবেশকারীরা যাতে দলে ঢুকে নাশকতা চালাতে না পারে সেজন্য আওয়ামী লীগের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী।

এসময় ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়াসহ আওয়ামী যুবলীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ২০২৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ১৬, ২০১০

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2010-10-16 10:34:15