ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

রাজনীতি

অরোরা বলেছিলেন ওসমানীকে পাওয়া যায়নি: ব্যারিস্টার রফিক

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৩ ঘণ্টা, অক্টোবর ৬, ২০১০

ঢাকা: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া বলেছেন, ‘বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম, মুক্তিযোদ্ধা বা মুক্তিযুদ্ধ, মুক্তিযুদ্ধে সহযোগিতাকারী ভারত কাউকেই তাচ্ছিল্য করে কথা বলিনি। বলার প্রশ্নই আসে না।

আমি  মনে করি ভুলবশত আমার কথা বিকৃত করে প্রচার করা হয়েছে। ’

মুক্তিযুদ্ধ প্রসঙ্গে দেওয়া তার সাম্প্রতিক বক্তব্য নিয়ে বিতর্ক তৈরি হওয়ার প্রেক্ষাপটে বুধবার দুপুরে জাতীয় প্রেস কাবে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মুক্তিযুদ্ধে সহযোগিতাকারী ভারতীয় মিত্র বাহিনীর প্রধান জেনারেল (অব.) জগজিৎ সিং অরোরা ’৯৮ সালে একবার ঢাকায় এসেছিলেন। তখন তাকে প্রশ্ন করেছিলাম- পাকিস্তানের আত্মসমর্পণ দলিলে কোথাও মুক্তিযুদ্ধ শব্দটি লেখা ছিলো না এবং মুক্তিযুদ্ধের সর্বাধিনায়ক জেনারেল (অব.) এমএজি ওসমানীকে আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে ডাকা হয়নি কেন? উত্তরে অরোরা বলেছিলেন- ওসমানীকে তখন খুঁজে পাওয়া যায়নি। আমি দিল্লীর নির্দেশেই এখানে আসি। ’

ব্যারিস্টার রফিক বলেন, ‘তার (অরোরা) কথায় মনে হয়েছিল- এ ছিলো যেন ভারত-পাকিস্তান যুদ্ধ। এভাবেই স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস ও ঐতিহ্য প্রভূ দেশের ইশারায় মুছে ফেলার চক্রান্ত চলছে। ’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে বিডিআরের অবদান ছিলো উল্লেখযোগ্য। সেই ঐতিহাসিক স্মৃতিকে মুছে ফেলার জন্যই এ সরকার বিডিআরের নাম পরিবর্তন করে বর্ডার গার্ড করেছে। ’

চ্যানেল আইয়ের তৃতীয় মাত্রা অনুষ্ঠানের কিছু বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি সত্য ঘটনা জাতির সামনে তুলে ধরার জন্য বিডিআর হত্যাকাণ্ড, বর্ডার গার্ড ও বাংলাদেশে আইন শীর্ষক ওই আলোচনা সভায় বক্তব্য রেখেছিলাম। ’

তার কথা যাচাই না করেই জিয়াউর রহমান মুক্তিযুদ্ধে ভারত না পাকিস্তানের পক্ষে ছিলেন বলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম যে বক্তব্য দিয়েছেন তারও সমালোচনা করেন ব্যারিস্টার রফিক।

এ সময় সংবাদ মাধ্যমে সঠিক সংবাদ পরিবেশনেরও আহবান জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫০ ঘণ্টা, অক্টোবর ৬, ২০১০

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa