ঢাকা, শুক্রবার, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৯ শাবান ১৪৪৫

রাজনীতি

উন্নয়নের পাশাপাশি দেশে বৈষম্য-দুর্নীতি বেড়েছে: মেনন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭৩৩ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
উন্নয়নের পাশাপাশি দেশে বৈষম্য-দুর্নীতি বেড়েছে: মেনন

টাঙ্গাইল: প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে দেশের উন্নয়ন হয়েছে উল্লেখ করে বাংলাদেশ ওয়ার্কস পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেছেন, উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে বৈষম্য আর দুর্নীতিও চরমভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।

শনিবার (৪ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে বাংলাদেশ ওয়ার্কস পার্টির সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে টাঙ্গাইল জেলা শাখার আয়োজনে আলোচনা সভায় যোগ দেওয়ার আগে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ একদিকে যেমন উন্নয়নের ধারায় অগ্রসর হচ্ছে, সঙ্গে সঙ্গে দেশের মধ্যে বৈষম্য আর দুর্নীতি চরমভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। দেশের উন্নয়ন হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে, এতে কোন সন্দেহ নেই। তবে এ উন্নয়নের ফলাফল জনগণ পাচ্ছে না।

তিনি আরও বলেন, যে আলোচনা হয়েছে তাতে আমরা এখনও জোটবদ্ধ আছি এবং জোটবদ্ধভাবেই নির্বাচনে যাবে। তবে জোটবদ্ধ না হলে নির্বাচন নিয়ে যে ষড়যন্ত্র চলছে সেটি কার্যকর হয়ে যাবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সরকারে যাওয়ার বিষয়টি আমাদের কন্ডিশন না। আমরা তো একটা অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাজনীতির ভিত্তিতে ঐক্যবদ্ধ হয়েছি। সেই ঐক্যটা যতদূর পর্যন্ত প্রাসঙ্গিক থাকবে ততদিন পর্যন্ত জোট থাকবে। আর বড় দল আওয়ামী লীগ যদি মনে করে তারাই যথেষ্ট তাহলে তখন আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ জোটে আসার বিষয়ে তিনি বলেন, অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাজনীতি এবং মুক্তিযুদ্ধের ধারা অব্যাহত রাখার রাজনীতির সঙ্গে সংযুক্ত হয়ে যারা এখানে আসতে চান, অবশ্যই তাদের স্বাগত জানানো হবে। কিন্তু যদি রাজনীতিকে পেছনে ফেলে দিতে চান, তাহলে আমরা তাকে স্বাগত জানাবো না।

রাশেদ খান মেনন আরও বলেন, আমরা ১৪ দলে আছি। আমরা জোটবদ্ধ হয়ে ২০১৪ সালের পর থেকে যেভাবে আন্দোলন সংগ্রাম করে বিএনপি জামায়াত জোট শাসনের পতন ঘটিয়েছিল এবং পরবর্তীতে ১৪ দল ক্ষমতায় আসার পর যুদ্ধাপরাধীদের বিচারকে কেন্দ্র করে সারাদেশে বিএনপি-জামাত যে নৈরাজ্য সৃষ্টি করেছিল তাও প্রতিরোধ করেছি। কিন্তু ২০১৮ সালের নির্বাচনে ১৪ দলের মূল যে দল আওয়ামী লীগ, তারা সরকারটাকে আওয়ামী লীগের সরকার বলেই পরিচিত করিয়েছেন।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টি টাঙ্গাইল জেলা শাখার কমরেড আনিসুর রহমান মল্লিক, গোলাম নওজব পাওয়ার চৌধুরীসহ অন্যান্য নেতারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৭২৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২৩
এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।