ঢাকা, সোমবার, ১৫ মাঘ ১৪২৯, ৩০ জানুয়ারি ২০২৩, ০৭ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

সম্মেলন ঘিরে ছাত্রলীগে উৎসবের আমেজ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১০০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৬, ২০২২
সম্মেলন ঘিরে ছাত্রলীগে উৎসবের আমেজ

ঢাকা: বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৩০তম জাতীয় সম্মেলন আজ (মঙ্গলবার)। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

 

মঙ্গলবার (৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে দশটার দিকে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সংগঠনটির সম্মেলন শুরু হওয়ার কথা রয়েছে। সম্মেলনকে ঘিরে উজ্জীবিত ছাত্রলীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের মাঝে উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে।

সকাল থেকেই নেতাকর্মীদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে টিএসসি ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ধীরে ধীরে নেতাকর্মীদের ভিড় বাড়ছে।

সম্মেলনে যোগ দিতে সকাল থেকেই ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মীরা খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে রাজধানীর ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আসতে শুরু করেন।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখাসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়, জেলা ও মহানগর ইউনিটের নেতাকর্মীরা ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানে দলে দলে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেট দিয়ে সম্মেলনস্থলে প্রবেশ করছেন। বেলা ১১টা পর্যন্ত প্রবেশ করা যাবে সম্মেলনস্থলে।

এ ছাড়া সম্মেলনকে ঘিরে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের গেটে গিয়ে দেখা যায়, কয়েকটি স্তরে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। প্রবেশ গেটগুলোতে স্ক্যানার বসানো হয়েছে। এর বাইরে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কয়েক স্তরের নিরাপত্তা পেরিয়ে প্রবেশ করতে হচ্ছে সম্মেলনস্থলে।

এদিকে শীর্ষ নেতৃত্বকে আসছেন তা নিয়ে শেষ মুহূর্তের জন্য চলছে জল্পনা-কল্পনা। পদ পেতে অনেকদিন ধরেই দৌড়ঝাঁপ শুরু করছেন ছাত্রলীগের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক পদপ্রত্যাশীরা।

দুই বছর পরপর নিয়মিত সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচিত হওয়ার কথা থাকলেও সাড়ে চার বছর পর উপমহাদেশের অন্যতম বৃহত্তম ছাত্র সংগঠনটির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে পারিবারিক পরিচয়, সংকটে দলের পাশে থাকা, বিতর্কমুক্ত, শিক্ষার্থীবান্ধব পদপ্রত্যাশীদের বিবেচনায় রাখছে আওয়ামী লীগের হাইকমান্ড। এসব শর্ত বিবেচনায় প্রায় দুই ডজন পদপ্রত্যাশী নেতৃত্বের দৌড়ে এগিয়ে আছে।

শেখ হাসিনা পরবর্তী শীর্ষ নেতৃত্ব ঠিক করবেন বলে জানিয়েছেন ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। তিনি বলেন, আমরা সম্মেলনের সার্বিক প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। ইতোমধ্যে প্রার্থীদের আবেদনপত্র নিয়েছি। প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার সিদ্ধান্ত অনুযায়ীই নতুন কমিটি হবে।  

ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলন হয়েছিল ২০১৮ সালের মে মাসে। ওই বছরের জুলাইয়ে ছাত্রলীগের সভাপতি পদে রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক পদে গোলাম রাব্বানী দায়িত্ব পান। তারা পদ হারালে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে সভাপতি পদে আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক পদে লেখক ভট্টাচার্য আসেন। ২০২০ সালের ৪ জানুয়ারি ‘ভারমুক্ত’ হন তারা।
 
বাংলাদেশ সময়: ১০৫৩, ডিসেম্বর ৬, ২০২২ 
এনবি/আরএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa