ঢাকা, সোমবার, ৩ আষাঢ় ১৪২৬, ১৭ জুন ২০১৯
bangla news

রমজানের শেষ দশক পরম পুণ্যময়

মেহেদী হাসান সাকিফ, অতিথি লেখক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-০৫-২৬ ৭:৪০:৪৫ পিএম
ছবি : প্রতীকী

ছবি : প্রতীকী

দেখতে দেখতে মাহে রমজানের বিশটি রোজা শেষ। রমজানের প্রতিটি দিন-রাতই রহমত, মাগফিরাত, নাজাতের আবহে ভরপুর। যারা রমজানের প্রথম বিশ দিন কাজে লাগিয়েছে, তারা বেশ কল্যাণ অর্জনে সক্ষম হয়েছেন। আর যারা কাজে লাগাতে পারেননি তাদের জন্য শেষ দশ দিনে পুষিয়ে নেওয়ার সুবর্ণ সুযোগ।

আমাদের পূর্ববর্তী নবীর উম্মতগণের আয়ু কয়েকগুণ বেশি ছিল। এজন্য তারা বছরের পর বছর টানা ইবাদত করতে পারতেন। আল্লাহ তাআলা উম্মতে মুহাম্মদিকে খুব স্বল্প আয়ু দিয়ে দুনিয়ায় পাঠিয়েছেন। তাই চাইলেও আমাদের পক্ষে টানা এতো ইবাদত করা সম্ভব হয় না। তবুও আল্লাহ উম্মতে মুহাম্মদিকে একেবারে বঞ্চিত করেননি। আল্লাহ তাদের এমন বিশেষ বিশেষ মুহুর্ত দান করেছেন, যেন সেগুলোকে কাজে লাগিয়ে সহজেই আল্লাহর নৈকট্যশীল বান্দা হতে পারে।

মাহে রমজানের শেষ দশক এর মধ্যে অন্যতম এক সুযোগ হচ্ছে। কেননা এই সময়ে রয়েছে লাইলাতুল কদর। লাইলাতুল কদর সম্পর্কে পবিত্র কোরআনে আল্লাহ বলেছেন, ‘আপনি কি জানেন লাইলাতুল কদর কী? লাইলাতুল কদর হাজার মাস অপেক্ষা উত্তম।’ (সুরা কদর আয়াত২-৩)

এ রাতে আল্লাহ তাআলা পুরো কোরআন কারিমকে লাউহে মাহফুজ থেকে প্রথম আসমানে অবতীর্ণ করেন। তাছাড়া অন্য আরেকটি মত আছে যে, এ রাতেই কোরআন নাজিল শুরু হয়। পরবর্তী ২৩ বছরে বিভিন্ন সুরা বা সুরার অংশবিশেষ বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ঘটনা ও অবস্থার প্রেক্ষিতে রাসুল (সা.) ওপর অবতীর্ণ হয়।

এই রাতের ফজিলত সম্বন্ধে হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ঈমান ও সাওয়াব লাভের আশায় কদরের রাতে নফল নামাজ আদায় ও রাত জেগে ইবাদত করবে, আল্লাহ তার ইতোপূর্বের সকল সগিরা (ছোট) গুনাহ ক্ষমা করে দেন।’ (বুখারি, হাদিস নং: ১৯০১; মুসলিম : ৭৬০)

কদরের রাত্রি কোনদিন?
রাসুল (সা.) বলেন, ‘রমাজানের শেষ দশদিনে তোমরা কদরের রাত তালাশ কর।’ (বুখারি, হাদিস নং: ২০২০; মুসলিম, হাদিস নং: ১১৬৯)

অন্য হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘তোমরা রমাযানের শেষ ১০ দিনের বেজোড় রাতগুলোতে কদরের রাত খোঁজ কর।’ (বুখারি, হাদিস নং: ২০১৭)

কিন্তু আমরা শুধু ছাব্বিশ রমজান দিবাগত রাত্রিকে শবেকদর ভেবে বসে আছি। এই রাত ছাড়া বাকি রাতগুলোতে ইবাদতের ব্যাপারে আমাদের যথেষ্ট শিথিলতা লক্ষ্য করা যায়। বছরের বাদবাকি সময়ের মতো এই সময়ে স্মার্টফোনে ফেসবুক-ইমোসহ বিভিন্ন সোসাল সাইটগুলো এবং নেটে ঢুকে দীর্ঘসময় অতিবাহিত করি। এটা কোনো মুমিনের জন্যই কাম্য নয়। আল্লাহ বলেন, ‘আর যারা (অর্থাৎ মুমিনরা) অনর্থক কথাকর্ম থেকে বিমুখ।’ (সুরা মুমিনুন, আয়াত: ০২)

শেষ দশকে অনেকের একটা বড় সময় কাটে ঈদ শপিংয়ের পেছনে। অথচ চাইলে এই কাজগুলো আরো আগেই সেরে রাখা যেতো।

কদরের রাতের ইবাদতের সুযোগ যাতে হাতছাড়া হয়ে না যায় সেজন্য রাসুল (সা.) শেষ দশদিনের পুরো সময়টাতে ইতেকাফরত থাকতেন। (মুসলিম, হাদিস নং: ১১৬৭)

কর্মব্যস্ততার কারণে আমাদের অনেকের পক্ষে ইতিকাফ করা সম্ভব নাও হতে পারে। এই সময়ে পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ জামাতের সঙ্গে আদায় করার পাশাপাশি তারাবির ও তাহাজ্জুদ নামাজ যথাসাধ্য আদায়ের চেষ্টা করবো।  কোরআন তেলাওয়াত, জিকির-আযকার এ রত থাকবো।

এই সময়ে কোনোভাবে যেন আমাদের লাইলাতুলকদর মিস না হয়, সেজন্য ফজর ও ইশার নামাজ জামাতে আদায় করতে হবে। হজরত ওসমান (রা)  বর্ণিত হাদিসে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘যে ব্যক্তি এশার নামাজ জামাতের পড়েছে, সে যেন অর্ধরাত পর্যন্ত নামাজ পড়েছে। আর যে ব্যক্তি ফজরের নামাজ জামাতে পড়েছে, সে যেন সম্পূর্ণ রাত নামাজ পড়েছে।’ (মেশকাত, পৃষ্ঠা নং: ৬২)

অন্যদিকে তারাবীর ফজিলত সম্বন্ধে রাসুল (সা.) বলেছেন, ‘যে ব্যক্তি ঈমান অবস্থায় সাওয়াবের আশায় রাতে তারাবি ও তাহাজ্জুদ আদায় করবে, আল্লাহ তাঁর পূর্ববতী (সগিরা) গুনাহগুলো মাফ করে দেবেন। (বুখারি, হাদিস নং: ৩৭; মুসলিম, হাদিস নং: ৭৫৯)

শেষরাতে সাহরি খাওয়ার জন্য আমাদের জাগতেই হয়। এই সময় নামাজে দাঁড়িয়ে  চোখের দুই ফোঁটা পানি ছেড়ে দিয়ে মহান প্রভুর নিকট আমাদের গুনাহ মাফের জন্য কান্নাকাটি করতে পারি। আবু হুরাইরা (রা.) থেকে বর্ণিত হাদিসে রাসুল (সা.) বলেছেন, “প্রত্যেকদিন রাতের শেষ তৃতীয়াংশে আমাদের রব (আল্লাহ) সবচেয়ে নিচের আকাশে নেমে আসেন এবং বলেন, ‘কে আমাকে ডাকছ, আমি তোমার ডাকে সাড়া দেব। কে আমার কাছে চাইছ, আমি তাকে তা দেবো। কে আছো আমার কাছে ক্ষমা প্রার্থনাকারী, যাকে আমি তোমাকে ক্ষমা করে দেবো?’ (বোখারি)।

রমজানবিষয়ক যেকোনো লেখা আপনিও দিতে পারেন। লেখা পাঠাতে মেইল করুন: bn24.islam@gmail.com

বাংলাদেশ সময়: ১৯৪০ ঘন্টা, মে ২৬, ২০১৯
এমএমইউ

ক্লিক করুন, আরো পড়ুন :   রমজান
        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

অপার মহিমার রমজান বিভাগের সর্বোচ্চ পঠিত

Alexa
cache_14 2019-05-26 19:40:45